শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০২:৫৩ অপরাহ্ন

করোনাকালে মানুষের পাশে প্রচারবিমূখ এক মানবিক কাফেলা

করোনাকালে মানুষের পাশে প্রচারবিমূখ এক মানবিক কাফেলা

করোনাকালে মানুষের পাশে প্রচারবিমূখ এক মানবিক কাফেলা

তাবলীগ নিউজ বিডি; করোনার মানবিক সংকট ও রমজানে মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন প্রচারবিমূখ তাবলীগের সাথীরা। তাবলীগের লাখ লাখ সাথী মসজিদ ও মারকাজ কেন্দ্রীক মাশওয়ারার মাধ্যমে অনাহারি মানুষকে প্রচুর সাহায্য করেছেন। তারা বিশ্ব আমীর মাওলানা সাদ কান্ধলভীর ঘোষনা” বিশ্ব পরিবার হয়ে এক দেহের মতো করোনার মানবিক বির্পযয়ে কাজ করুন” আহবানে সাড়া দিয়ে তাবলীগের সাথীরা সারাদেশে ব্যাপকভাবে এগিয়ে এসেছেন। তাড়া আড়াল থেকে বা নিজেকে প্রচারণার আড়ালে রেখে ব্যাপকভাবে এই মানবিক বির্পযয়ে অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন।

আরও পড়ুন: করোনা দূর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে তাবলীগের মুরুব্বিদের আহবান

ত্রান নয় হাদীয়া:
ত্রান দিয়ে ফটোশেসন হয় অপরদিকে কাউকে হাদীয়া দেয়া সুন্নত ও ইবাদত। এই দানের এর সাথে ইখলাসের সম্পর্ক। তাই তাবলীগের সাথীরা বলেন, আমরা ত্রান দেই না, এসব হলো হাদীয়া বা দান যা গরীব মানুষের হক। পরকালিন নাজাতের উসিলায় যেন এই দান কাজে আসে।

দেশের যে কোন মানবিক বিপর্যয় ও দুর্যোগে তাবলীগের সাথীরা জান মাল নিয়ে এগিয়ে এসে বারবার নজির স্থাপন করেছেন। করোনাকালেও এর ব্যাতিক্রম হয় নি। অনুসন্ধানে জানাযায় ঢাকার এক ব্যাবসায়ী তাবলীগের সাথী নিজে অভাবী মানুষের মাঝে ২৭লক্ষ টাকা বন্টন করেন। যা তার জাকাতের বাহিরে ছিল। এজন্য তিনি একটি জামাত তৈরি করে বাড়ি বাড়ি নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেন। কিন্তু মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার নামটিও বলতে নারাজ। কিন্তু বাংলাদেশে বর্তমানে চলছে ত্রানের নামে ডাকডোল আর ফটোশেসন ও নিউজ কাভারের রাজনীতি। তাবলীগের সাথীদের এখলাসের কারনে আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে ফটোসেশনের ফেতনা থেকে হেফাজত করেছেন।

কওমী শিক্ষকদের পাশে দাড়ানো তাবলীগের সাথীদের ঈমানী দায়িত্ব

চিকিৎসায় তাবলীগের ডাক্তাররাঃ
করোনার এই দুর্দিনে যখন হাসপাতালে ডাক্তার খোঁজে পাওয়া যায় না, এই মুহুর্তে তাবলীগের হাজারের অধিক চিকিৎসক সারাদেশে এই মানবিক সময়ে কেবল হাসপাতালেই নয়, বাড়িতে গিয়ে চিকিৎসা দিচ্ছেন রোগীদেরকে। যেসব হাসপাতালে যে কয়েকজন ডাক্তারকে নিয়মিত রোগী দেখতে পাওয়া যায় তাদের বড় অংশই তাবলীগের সাথী। তারা তকদিরের উপর ভরসা করে সুরক্ষার সাথে মানুষের পাশে দাড়িয়ে কাজ করছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজসহ রাজধানীর সরকারী হাসপাতালগুলোতে তাবলীগ জামাতের সাথে জড়িত চিকিৎসকদের উপস্থিত চোখে পড়ার মতো। এর জন্য তারাও কোন প্রচারণা চান না।

মৃতদের দাফনে অগ্রনি ভুমিকা:
প্রচারবিমূখ তাবলীগের সাথীরা সারাদেশে ব্যাপকভাবে করোণায় দাফন কাফনে সক্রিয় অংশ নিচ্ছেন সওয়াবের আশায়। চট্টগ্রাম মারকাজ সহ দেশের বিভিন্ন মারকাজের মাধ্যমে করোণায় আক্রান্ত হয়ে মৃতদের লাশের কাফন গোসল দাফনের ব্যাবস্থা করা হয়। এবিষয়ে কাকরাইল মারকাজ থেকে তাবলীগের মূলধারার আহলে শূরা হযরতগন বারবার চিঠিও তারগীব প্রদান করেন। দাফনের কাজে জড়িত এক সাথী জানান ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রায় ৭৫জন করোণা মৃতের দাফনে তাবলীগের সাথীরা দাফনে অংশগ্রহণ করেছেন।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে তাবলীগ জামাত করোণায় মৃত্যুদের দাফন করছে 

জাকাত আদায়:
বাংলাদেশে হিসাব করলে শতভাগ হক আদায় করে যারা জাকাত দোন তাদের বড় অংশ তাবলীগ জামাতের সাথে জড়িত সম্পদশালীরা। তাবলীগের সাথীরা জাকাতের নামে কোন প্রকার মিডিয়া কাভারেজ না করে নিরবে খোঁজে খোঁজে হকদারদের কাছে আল্লাহর ভয়ে জাকাতের হক পৌছে দিচ্ছেন। দেশের সাথীদের সাথে প্রবাসী সাথীরাও ব্যাপকভাবে দোশে জাকাত প্রদান করেছেন। তাবলীগের সাথীদের জাকাত আদায় কার্যক্রমে উপকার হচ্ছে লাখ লাখ অসহায় মানুষের। এর মাঝে এবছর করোণায় মাদরাসা বন্ধ থাকায় তাবলীগের সাথীরা ব্যাপকভাবে আলেম উলামার পাশে জাকাত ও হাদীয়া পৌছে দেন বলে জানাযায়।

যারা এই নেকী কামাইয়ের মুহুর্তে নেকী কামানোর তা কামাই করে নিচ্ছেন। আমি যেন বঞ্চিত না হই। আসুন তাবলীগের দানশীল নিভৃতচারী প্রচারবিমূখ সাথীদের সাথে আমিও মানুষের পাশে দাড়াই। হযরতজীর নির্দেশ হিসাবে আমার জায়াগা থেকে আমার চারপাশে হাত বাড়িয়ে দেন।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com
error: Content is protected !!