শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন

জোড় ও বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে মূলধারার তাবলীগের সাথীদের সাংবাদিক সম্মেলন।

জোড় ও বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে মূলধারার তাবলীগের সাথীদের সাংবাদিক সম্মেলন।

স্টাফ রিপোর্টার, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম। বাংলাদেশে  তাবলীগ জামাত মূলধারার সাধারণ সাথীদের উদ্যোগে আজ বেলা ১১.৩০ মিনিটে বাংলাদেশ তাবলীগ জামাত এর নিয়মতান্ত্রিক ধর্মীয় কার্যক্রম পরিচালনায় বহিরাগত প্রতিক্রিয়াশীল চক্র কর্তৃক বাধা প্রদানের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

রাজধানীর সোগুন বাগিচায় “ঢাকা রিপোর্টারস ইউনিট (ডিআরইউ) সাগর- রুনি মিলনায়তন ‘ সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এড.ইলিয়াস মোল্লা। বক্তব্যে বলেন, তাবলীগের শতবছরের নিয়মের বাহিরে এসে একান্তভাবে বাধ্য হয়ে আজ এই সাংবাদিক সম্মেলন করতে হচ্ছে। আপনারা জানেন, তাবলীগ জামাত সারা বিশ্বের একটি শান্তিপ্রিয় অহিংস দ্বীনী অরাজনৈতিক সংঘ। দীর্ঘদিন ধরে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা দিল্লীর কেন্দ্রীয় মারকাজের অধিনে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। যার সাথে আমাদের দেশের ইতিহাস ঐতিহ্যের সম্পর্ক।  বাংলাদেশের গর্বের ধন এই বিশ্ব ইজতেমাকে এদেশ থেকে পাকিস্তানে সড়িয়ে নেয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ফলে আজ আমাদের পিঠ জুলম নির্যাতন সহ্য করতে করতে একেবারে দেয়ালে লেগে গেছে।

তাবলীগের মূলধারা থেকে বিচ্ছিন্ন কিছু লোক আলেমদের ভুল তথ্যদিয়ে তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে নানান ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচার করে আসছে। সারা দেশে নিজামুদ্দিন অনুসারী তাবলীগের মূলধারা সাথীদের গাশত, তালিম ও জামাতে যেতে বাঁধা দিচ্ছে। যা আমাদের নাগরিক অধিকার হনন ও ধর্মীয় স্বাধীনতা খর্ব করা ও হস্তক্ষেপের শামিল। দেশের একজন সুনাগরিক হিসাবে আমরা স্বাধীনভাবে আমাদের ধর্মীয় কাজ করতে কোন প্রকার বাঁধা ও সহিংসতা এড়াতে আমরা সরাসরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

বিশ্ব ইজতেমার আগে প্রতি বছর ইজতেমা সফল করতে ৫দিনের জোড় অনুষ্ঠিত হয়।

আগামী ৩০শে নভেম্বর শুক্রবার থেকে টঙ্গির ময়দানে দাওয়াত ও তাবলীগের পুরানো সাথীদের ৫দিনের জোড় অনুষ্ঠিত হবে ইনশাআল্লাহ। উক্ত জোড়ে সারাদেশের অন্তত ৬ লক্ষ তাবলীগের তিন চিল্লার সাথী অংশ গ্রহন করবেন।

আপনারা নিশ্চয় জানেন, বিগত ৬০বছর যাবৎ দিল্লীর নিজামুদ্দিন মারকাজ ও কাকরাইলের মুরুব্বীদের তত্বাবধানে এই জোড় অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বিগত ১বছর আগে এই জোড়ের ফায়সালা হয়েছে। বাংলাদেশের তাবলীগের মূলধারার মুরুব্বীগন এই বছরের ৫দিনের জোড় করার ব্যাপারে চুড়ান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন।

কিন্তু, সম্প্রতি দুঃখজনক সংবাদ হল, যা ইতোমধ্যে বিভিন্ন অনলাইন গণমাধ্যমে এসেছে যে, উক্ত  ৫দিনের জোড়কে বানচাল করতে,  বিগত কয়েকদিন  যাবৎ টঙ্গীর ময়দান পাহারার নামে ঢাকা ও আশপাশের জেলা থেকে কওমী মাদরাসার কোমলমতি ছাত্রদের লাঠি-সোটাসহ টঙ্গির ময়দানে জড়ো করা হয়েছে।

কোন সংঘাতময় কাজে এভাবে শিশু কিশোরদের ব্যবহার করা সামাজিক, রাষ্ট্রীয়, মানবিক ও শিশু আইনে মারাত্বক অপরাধ, অন্যায় ও গর্হিত কাজ বলে বিবেচিত। ৫দিনের তিনচিল্লার সাথীদের জোড়ের দিন কোনভাবেই টঙ্গীতে ছাত্রদের থাকার সুযোগ নেই। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে সারা দেশের  তাবলীগের সাথীরা যথা নিয়মে টঙ্গীর ইজতেমার ময়দানে পৌছবে।

এতে করে যদি মাদরাসার ছাত্রদের কেউ রাজনৈতিক হীনস্বার্থে উস্কে দিয়ে সেদিন কোন প্রকার, দুঃঘটনা বা সংঘর্ষ  বা সংঘাত  ঘটায়, তাহলে  এর দ্বায়ভার অবশ্যই সংশ্লিষ্ট কওমী মাদরাসা  শিক্ষাবোর্ড,  মাদরাসার উস্তাদ, মুহতামিম, কতৃপক্ষকেই নিতে হবে।

এসময়, অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন,মাওলানা আবদুল্লাহ মনসুর, মাওলানা সাইফুল্লাহ, মেজর জেনারেল (অব) রফিকুল ইসলাম, ব্যারিষ্টার গাজিউর রহমান, মাওলানা আব্দুল কাদির, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা আনোয়ার আবদুল্লাহ, আব্দুল্লাহ শাকিল, মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, সায়েম আহমদ প্রমূখ।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com
error: Content is protected !!