শনিবার, ২৭ Jun ২০২০, ১১:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
পাকিস্তানের শীর্ষ আলেম মুফতি নাঈমের ইন্তেকল হাটহাজারীর শুরার সিদ্ধান্ত ও আমার কিছু কথা : আবু রেজা নদভী এম পি উভয় আমাদের কাছে সম্মানীত : সৈয়দ মবনু তবলীগ আমাদের, হাটহাজারীও আমাদের  “আড়ালের সাতকাহন”” প্রসঙ্গ হাটহাজারী: অশালীন শব্দচর্চা ওয়ারাসাতুল আম্বিয়াদের ভাষা হতে পারে না আমরা কি আজীবন মসজিদ মাদ্রাসা নির্ভর থাকব? বাবুনগরীর অব্যাহতি নিয়ে আধা ঘণ্টার ব্যবধানে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য মুঈনে মুহতামীমের পদ থেকে আমি পদত্যাগ চাইনি : আল্লামা বাবুনগরী খাজা মঈনুদ্দীন চিশতি রহঃকে নিয়ে অবমাননায় নিন্দা সাইয়েদ আরশাদ মাদানির হাটহাজারী মাদরাসার শূরার বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ তিন সিদ্ধান্ত

চলুন আমরা সাবধান হই…

চলুন আমরা সাবধান হই…

মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম মিলন

বেশ কয়েকদিন পর বাজারে গেছি বিশেষ কিছু কেনার জন্য। জমহুর পক্ষীয় এক খাতিরের সাথী ভাই দৌড়িয়ে এসে বলছে, ‘মিলন ভাই সাদ ছাবের বলে করোনা হইছে? এরেষ্টও বলে হইছে’ ? আমি না হাইসা বললাম, ‘তাওতো ভালা উনার মরার খবর এখনো জানো নাই! এ পর্যন্ত তোমগরে কোন সাথী উনার মরার খবর দেয় নাই’ ? ও টাসকি লাইগা গেছে!

পরে বিস্তারিত বললাম, মাওলানা সাদ সাহেব এভাবে এভাবে জুলুমের শিকার হচ্ছেন বার বার। আর আলহামদুলিল্লাহ তোমাদের জন্য দুঃখজনক সত্য হলো, উনার করোনার টেস্টে পজিটিভও আসে নাই এবং পুলিশও এ পর্যন্ত ধরে নাই। সুন্দর ভাবে উনি বহাল তবিয়তে আছেন।,,,,,।
. …

তাবলীগের বিভাজনের পর থেকে কিছু অন্য টাইপের আলেম সমাজ এবং আমাদের কিছু এতায়াতী নামে বেএতায়াতী জাহেলদের ভূমিকায় সর্বদাই সচেষ্ট।
“জাহেলদের ভূমিকায়” এ জন্য বললাম, কথিত আলেমদের ইজতেমায় গ্যাসের সিলিন্ডার ফেটে বিস্ফোরণ ঘটায় হাজার হাজার মানুষ আহত হলো। এটাকে উনারা আল্লাহর আজাব বললেন না, কিন্তু আমাদের (২য়) ইজতেমায় হালকা বাতাস ও বৃষ্টিকে উনারা আল্লাহর আজাব হিসেবে ভূষিত করলেন।
অথচ আমরা যারা মাঠে ছিলাম, ঠিকই বুঝেছি, বৃষ্টিটা আমাদের জন্য কত্তো বড় রহমত ছিলো।

করোনায় মালয়েশিয়া ও নিজামুদ্দীনের কিছু সাথী ভাই যখন আক্রান্ত হলো, ভারতের গদি মিডিয়ার সাথে সাথে আমাদের ঐ আলেম সমাজও বলা শুরু করলেন যে, ‘এতায়াতীরাই করোনার ধারক ও বাহক। এবার তাদের আল্লাহ ধরছে’!

করোনার এ সময়ে আমাদের কোন উল্লেখযোগ্য সাথীর নরমাল অসুস্থতার খবর পোষ্ট দিয়ে যদি দোয়া চাওয়া হয়, তারা দাওয়াত দেয়া শুরু করে দেন যে, “শুনছগো, অমুকের বলে করোনা হইছে, দোয়া চাইছে”। এতে কিটকিট করে হাসার খোরাক তারা পায়।

আমাদের একজন সাথী নরমাল ভাবে মারা গেছেন। খবর আসার সাথে সাথে উনারা অন্যকে বলছেন, “অমুকতো করোনায় মারা গেছে”।

করোনা বা মহামারিতে মুসলমান মারা গেলে বিভিন্ন সময় আপনারাই বলেছেন, তারা শহীদ। হাদীসে পাকে তা-ই এসেছে। আজকে এমন আচরণ করা কি মূর্খতা নয়?

আমরা যারা নিজেদের এতায়াতী পরিচয় দেই, আমরাও এ মূর্খতা থেকে খালি না। আমরাও যদি শুনি, ওমুক জমহুর পক্ষীয় আলেম অসুস্থ, তখন একটু উজাইয়া চিন্তা করি, ‘হয়তো করোনা হইছে’। কেউ যদি মারা যান, বলি, ‘হয়তো করোনায় মারা গেছে’।

আরেকটা বিষয় বললে হয়তো এতায়াতী ভাইয়েরা আমার দিকে বক্র চোখে তাকানো শুরু করবেন। বিশ্বাস করেন, আপনাদের বক্র চোখকে আমি ভয় করি না। বরং ঐ মার্কা এতায়াতী থেকে আল্লাহ তাআলার কাছে পানাহ চাই।
সেটা হলো, জমহুর পক্ষীয় সব আলেমকেই আমরা হেয় প্রতিপন্ন করি। অন্য চোখে দেখি। শুধু হযরত মাওলানা সাদ সাহেবের এতায়াত না করলেই যে ওলামায়ে কেরাম একেবারে পচে গেছেন, এটা মনে করাও পরিস্কার মূর্খতা।

উল্লেখ্য, হযরত আয়েশা রাঃ এর মিথ্যা অপবাদে যে সমস্ত মুসলমান জড়িয়ে পড়েছিলেন, তারা কি একেবারে মুসলমান থেকে খারিজ হয়ে গিয়েছিলেন? না তারা খারিজ হননি।

হযরত আলী রাঃও আমীরুল মু’মীনের হাতে বয়াত হতে দেরী করেছিলেন। উনাকে ঐ সময়ে কেউ আমাদের মতো “পচে গেছে” মনে করেননি।

আমি মনে করি, বর্তমানে বাংলাদেশের হাজার হাজার ওলামায়ে কেরামদের নিকট মাওলানা সাদ সাহেব যে নির্দোষ, এবং তার ব্যাপারে মিথ্যা অপবাদ দেয়া হয়েছে, সে বিষয়ে পরিস্কার । কিন্তু আমার মতো কিছু বেএতায়াতী ও মূর্খের কারনে তারা তা প্রকাশ করছেন না।
তাই, চলুন আমরা সাবধান হই।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com