মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ সিরাত থেকে ।। কা’বার চাবি দেওবন্দের বিরোদ্ধে আবারো মাওলানা আব্দুল মালেকের ফতোয়াবাজির ধৃষ্টতা:শতাধিক আলেমের নিন্দা ও প্রতিবাদ একান্ত সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী :উলামায়ে হিন্দ নিজামুদ্দীনের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন তাবলীগের হবিগঞ্জ জেলা আমীর হলেন বিশিষ্ট মোহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল হক দা.বা. হযরতজীর চারপাশের মানুষগুলো (পর্ব-১) সকল তবলিগি মামলা আট সপ্তাহে শেষের নির্দেশ ভারত সুপ্রিম কোর্টের!  যে ৭ শ্রেণীর মানুষ আরশের ছায়া পাবে মূলধারায় ফিরে আসা এক আলে‌মের জবানবন্দি -০১ এক আবেগী মাওলানা ও হযরতজী ইলিয়াস রহঃ ঘটনা
কথিত পাহারার নামে টঙ্গীর মাঠ দখলে এরা কারা?

কথিত পাহারার নামে টঙ্গীর মাঠ দখলে এরা কারা?

ষ্টাফ রিপোর্টার তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম |  টঙ্গীর  মাঠে গতকাল রাতে কোন তাবলীগের মুরুব্বীকে না দেখলেও মাঠের নিয়ন্ত্রণে রাজনৈতিক আলেমদের ব্যাপকহারে স্বদলবলে দেখা যায়। গতকাল সারাদিন থেকে শেষরাত পর্যন্ত তাবলীগ নিউজের প্রতিনিধি সেখানে উপস্থিত  ছিলেন। তখন এমন দৃশ্যই চোখে পরে।

দুপুরে এক পুলিশ অফিসারকে টিনসেডে ঐসব নেতাদের  সাথে খাবার খেতে ও তাদের মাঠে থাকতে আশস্থ করতে দেখা যায়। যদিও পুলিশের উধ্বর্তন অফিসারগনের সমন্নয়ে উভয় পক্ষ মঙ্গলবার  বিকালে মাঠ ছাড়তে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। মাঠঘুরে এবং পাহারার কাজ তদারকি করতে এমন অপরিচিত  লোকজনকেই দেখা যায় যাদের আগে কখনো তাবলীগের কোন কাজে চোখে পরে নি।

আগামী কাল শুক্রবার টঙ্গীর ময়দানে মূলধারা তাবলীগের সাথীদের ৫দিনের জোর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে তাদের ঠেকাতে রাজনৈতিক শক্তি প্রদর্শন করে মাদরাসার ছাত্র ও বহিরাগতদের দিয়ে অপরপক্ষ মাঠ দখলে নেন। এমন কি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা দখল ঠিক রাখতে যেকোন সাংঘর্ষিক পরিস্তিতি তৈরি করতে প্রস্তুত বলে ঘোষনা দেন।

গতকাল রাতেও সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এখন প্রচুর ছাত্র ও  আলেমরা মাঠে লাটি হাতে অবস্থান করছেন। টঙ্গীর  টিনসেডে বাদ মাগরিব একজন মাওলানা উপস্তিত লোকদের সামনে বয়ান করেন। যানা যায় মাঠ পাহারার ভিতর দিয়েই টিনসেডে জোড়ের আদলে নিয়মিত বয়ান  চলবে। যদি তাবলীগের কোন মুরুব্বীকে মাঠে খোঁজে পাওয়া যায় নি।

অপর দিকে তাবলীগের শতবছরের চিরচেনা  মেজাজ ও ঐতিহ্য  অনুযায়ী যেকোন সাংঘার্ষিক পরিস্থিতি এড়িয়ে মাঠ দখল নয় বরং উম্মতের দ্বীলের দখল, মেহনত দখল রাখতেই সচেষ্ট  মূলধারার তাবলীগের সাথীরা। ফলে তারা যেমন সর্বমহলে বারবার প্রসংশিত হচ্ছেন তেমনি, বিরোধী মূলধারাচ্যিতরা সর্বমহলে তাদের উগ্রতা ও চরমপন্থার কারনে ব্যাপক সমসলোচিত হচ্ছেন।

মাদরাসার ছাত্র দিয়ে মাঠ দখলের হীন ষড়যন্ত্রের কারনে বাধ্য হয়েই তাবলীগের সাথীরা সাংবাদিক  সম্মেলন করেন গত মঙ্গলবারে। এর প্রশাসন উভয় পক্ষের লোকদেরকে মাঠ ছাড়তে বলে। সে নির্দেশ উপেক্ষা করে মাঠ দখলেড ঘৃন রাজনীতি এখন চারদিকে শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মানুষের কাছে চরম সমালোচিত।

এদিকে নানান গুজব ছড়নো হলেও, তাবলীগের মূলধারার মুরুব্বীরা জানিয়েছেন, তারা পরিস্থিতি বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত  নিবেন। তাদের যে কোন  সিদ্ধান্তের আলোকেই কাজ করবে সারাদেশের ৫লক্ষ তিন চিল্লার আনুগত্যশীল তাবলীগের সাথীরা। তবে কোন পর্যায়েই মাঠ দখলে তারা কারো সাথো কোন  সংঘর্ষে জড়াবেন না। বিশ্ব আমীরের নির্দেশ অনুযায়ী যেকোন ছাড় দিয়ে হলেও তাবলীগকে তার চিরচায়িত নিয়ম  অনুযায়ী অহিংস,শান্তিপ্রিয় আর্দশের উপর অটল রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

কিন্তু গতকাল দেখা যায়, প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে হেফাজতী প্রভাব খাটিয়ে রাজনৈতিক স্টসইলে উল্টো সারা দেশ থেকে আলেমরা তাদের সমর্থকদের কে নিয়ে মাঠ দখলে শক্তি সঞ্চয়  করে সেখানে মহড়া দিচ্ছেন। যা দেশের শীর্ষ জাতীয়  দৈনিক প্রথমআলো সহ বিভিন্ন গনমাধ্যমে উঠে এসেছে।

উভয় পক্ষের জোড় প্রশাসন বন্ধের কথা বললেও পাকিস্তানের কথিত শুরাপথীরা ৭নভেম্বরের জোড় মাঠের পাহারার নামে বিশেষ শক্তির গোপন সহায়তায়  গতকাল রাত থেকেই টঙ্গির মাঠে কৌশলে কাজ শুরু করে দিয়েছেন। তবে সেখানে মূলধারাচ্যুত তাবলীগী কোন মুরুব্বীর তদারকী বা উপস্তিতি নেই। পুরো নিয়ন্ত্রন বহিরাগতদের হাতেই। তাহলে কী এই মাঠ দখলের অপচেষ্টার হন উদ্দেশ্যে ছিল এই তাবলীগ বিরোধী চলমান আন্দোলন?

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com