শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০১:৪০ অপরাহ্ন

শীত. মুমিনের বসন্তকাল

শীত. মুমিনের বসন্তকাল

শীত শুধু আমাদের প্রিয় ঋতু, তা কিন্তু নয়। আমাদের কাছে স্মরণীয় ও বরণীয় এমন অনেক বড় মাপের মানুষেরাও শীতকে ভীষণ পছন্দ করতেন।
নবিজির (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) খুব কাছের একজন সাহাবি ছিলেন আব্দুল্লাহ ইবনু মাসউদ (রাদিয়াল্লাহু আনহু)। শীতকে তিনি পছন্দ তো করতেনই, রীতিমতো স্বাগত জানাতেন! কী বলতেন?
“শীত, তোমাকে স্বাগতম!” [১]
আরও অনেক সাহাবি, তাবিয়ি ও পুণ্যবান মানুষদের প্রিয় ঋতু ছিল শীত। শীত-কে শুধু শীতের কারণে পছন্দ করতেন, তা নয়; তাঁরা শীত-কে ‘বসন্ত’ হিসেবে দেখতেন। তাঁরা দেখতে শিখেছেন নবিজীর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কাছ থেকে।
নবিজী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন:
“শীত ঋতু মুমিনের জন্য বসন্তকাল।” [২]
ওমা, এ কেমন কথা! বসন্ত একটা ফুল্ল-ফুলেল ঋতু, ওদিকে শীত এলে তো গাছের পাতাটুকুও অবশিষ্ট থাকে না! বসন্তে চারিদিকে গান আর ঘ্রাণ, শীত শুষ্ক আর নিষ্প্রাণ। দুটো কি কখনও এক হয়?
আলবৎ হয়! কীভাবে, দেখুন।
এই ঋতুতে দিনগুলো ছোটো হয়। কেউ যদি নফল রোজা রাখতে চায়, সহজেই রাখতে পারে। গ্রীষ্মের মতো দাবদাহ নেই,ফলে অতিরিক্ত পিপাসার শঙ্কা নেই। দিনগুলো অত বড় নয়, ক্ষুধায় রুগ্ন হয়ে পড়ার ভয়ও নেই।
আবার শীতকালে রাতগুলো বেশ দীর্ঘ হয়। যাঁরা আল্লাহর প্রিয় হতে চায়, তাঁরা রাতের শেষভাগে সালাত আদায় করার জন্যে সব সময় মুখিয়ে থাকেন, সচেষ্ট থাকেন। অনেক সময় ঘুমের কারণে এই ইচ্ছায় ছেদ পড়ে। কিন্ত শীতের রাতগুলো বেশ দীর্ঘ। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমিয়ে তারপর জায়নামাযে দাঁড়ানো যায়।
দেখা যাচ্ছে, শীত ঋতুতে দিনটা সাওমের উপযোগী। রাতটা সালাতের অনুকূলে। ইবাদাতের ফুল ফোটে সারাক্ষণ। আল্লাহর কাছাকাছি হবার প্রবর্তনা সুর বাঁধে অনুক্ষণ। ঘ্রাণে আর গানে মুখরিত এমন সময়টাকে ‘বসন্ত’ না বললে কি মানায়? এমন স্বর্ণপ্রসূ বসন্তকে ভালো না বেসে উপায়ই বা কোথায়?
তথ্যসূত্র:
১. লাতাইফুল মাআরিফ, ১/৩২৭।
২. মুসনাদ আহমাদ: ১১৭১৬ (ইমাম হাইসামি-র মতে, সনদ হাসান। দেখুন- মাজমাউয যাওয়াইদ: ৭/৩৮৮
Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com