শনিবার, ১৯ Jun ২০২১, ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চলতি মাসেই চালু হচ্ছে ৫০ মডেল মসজিদ অনলাইনে বিভিন্ন গ্রুপ ও পেইজ এডমিনদের নিয়ে মাশোয়ারার  বাংলাদেশে আরবি বিস্তারের মহানায়ক আল্লামা সুলতান যওক নদভী (দা.বা) দেওবন্দে গেলেন হযরতজী মাওলানা সাদ কান্ধলভী দা.বা. মনসুরপুরীকে নিয়ে সাইয়্যেদ সালমান হুসাইনি নদভির স্মৃতি চারণ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীর ইন্তেকালে বিশ্ববরেণ্য আলেমদের শোক আমীরুল হিন্দ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীঃ জীবন ও কর্ম আমার একান্ত অভিভাবক থেকে বঞ্চিত হলাম : মাহমুদ মাদানী মানসুরপুরীর ইন্তেকালে জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের গভীর শোক প্রকাশ দেওবন্দের কার্যনির্বাহী মুহতামিম সাইয়েদ কারী মাওলানা উসমান মানসুরপুরী আর নেই
পুরো পৃথিবী খুব মিস করে জুনায়েদ জামশেদকে।

পুরো পৃথিবী খুব মিস করে জুনায়েদ জামশেদকে।

পুরো পৃথিবী খুব মিস করে জুনায়েদ জামশেদকে।

তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম:
জুনায়েদ জামশেদ! চার বছর আগে এ দিনে পুরো পৃথিবীকে কাঁদিয়ে ইন্তেকাল করেছিলেন। মর্মান্তিক বিমান দূর্ঘটনায় নিভে যায় তার জীবনপ্রদীপ। নেমে আসে পৃথিবীর দেড়শো কোটি মুসলমানের মাঝে শোকের ছায়া।
জুনায়েদ জামশেদ শুরুর জীবনে ছিলেন বিখ্যাত পপ স্টার। ‘দিল দিল পাকিস্তান’ এখনো পৃথিবীতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। পাকিস্তানের কোষে কোষে এখনো ধ্বনিত হয় জামশেদের কালজয়ী গানটি।
“ভাইটাল সাইন” এর মাধ্যমে পুরো পৃথিবীতে জশ, খ্যাতি অর্জন করেছিলেন জুনায়েদ জামশেদ! জুনায়েদ জামশেদের ক্যরিয়ার যখন মধ্য গগণে, তখনই হঠাৎ তিনি পাল্টে ফেলেন জীবনের গতিপথ। ছেড়ে দেন গিটার, ডোল, তবলার জগত! জামশেদের কোটি কোটি ভক্ত আশাহত হয়! নতুন এক জামশেদ হিসাবে তিনি আত্মপ্রকাশ করেন পৃথিবীর মুসলমানদের কাছে।
দাওয়াতে তাবলিগের ছোঁয়ায় হয়ে উঠেন একজন আলোকিত মানুষ। গিটার ছেড়ে খালি কণ্ঠে শুরু করেন আল্লাহ এবং রাসুলের সংগীত! মদিনা যাওয়ার ব্যাকুল আগ্রহ নিয়ে জুনায়েদ জামশেদের “মুহাম্মাদ কা রাওজা কারিব আ রাহা হায়” কত মুসলমানের চোখের অশ্রু ঝরিয়েছে! মদিনা যাওয়ার আগ্রহকে বৃদ্ধি করেছে! “মেরে দিল বদল দে” শুনে কত পাপী শেষ রাতে খোদার দরবারে অনুতপ্তের অশ্রু ঝরিয়েছে!
“এলাহি তেরে চৌকাঠ পর ভিখারি বন কে আয়া হো” সংগীত ধাক্কা দিয়েছে গুনাহের অঁতলান্ত আধারে হারিয়ে যাওয়া কত মুসলমানদের হৃদয়ে! বিশে^ হাজার হাজার শিল্পী ইসলামি সংগীত নিয়ে কাজ করেন। কিন্তু জুনায়েদ জামশেদ একজন। হৃদয়ের উত্তাপ সুরের মাধ্যমে প্রকাশ করে শ্রোতার কর্ণ কূহর পেরিয়ে হৃদয়ের বদ্ধ দরজায় তার মতো আর কেউ ধাক্কা দিতে পারে না।
মদিনা প্রেমের সাগরে তার মত আর কেউ তরঙ্গ সৃষ্টি করতে পারে না! জুনায়েদ জামশেদ ইন্তেকালের আজকে চার বছর পার হলো। কিন্তু আমার এখনো বিশ্বাস হয় না প্রিয় জুনায়েদ জামশেদ আমাদের মাঝে নেই। কারণ অামার জেগে থাকা প্রতিটি রাতে একজন থাকেন আমার সাথে। পুরো পৃথিবীতে পিনপীতন নিরবতা বিরাজ করলেও একজন আমাকে নীরবতা উপলব্ধি করতে দেন না।
তিনি জুনায়েদ জামশেদ! রাত গভীর হলে তিনি এসে আমাকে শুনান “দরবার মে হাজির হ্যায় এক বান্দায়ে আওয়ারা!” রাতের শেষ প্রহরে তার কণ্ঠে শুনতে পাই “মে তো উম্মাতি হো আয় শাহে উমাম”! পুরো পৃথিবী খুব মিস করে জুনায়েদ জামশেদকে।
কারণ তার মতো আর কেউ হৃদয়ে আঘাত করা সংগীত গেয়ে মুসলমানদের চেতনায় আঘাত করতে পারে না। আশা করি জান্নাতে একটি মাহফিল হবে। সে মাহফিলে আবারো জুনায়েদ জামশেদের কণ্ঠে শুনবো “মিঠা মিঠা পেয়ারা পেয়ারা মেরে মুহাম্মাদ কা নাম”। প্রিয় জুনায়েদ জামশেদ! আল্লাহ আপনাকে জান্নাতের উচ্চ মাকাম দান করুন।
ছবিতে থাকতে পারে: 1 জন, দাড়ি
0
জন দেখেছেন
0
এনগেজমেন্ট
পোস্টের প্রচার করুন
লাইক করুন

 

কমেন্ট করুন
শেয়ার করুন
Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com