বুধবার, ১৬ Jun ২০২১, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চলতি মাসেই চালু হচ্ছে ৫০ মডেল মসজিদ অনলাইনে বিভিন্ন গ্রুপ ও পেইজ এডমিনদের নিয়ে মাশোয়ারার  বাংলাদেশে আরবি বিস্তারের মহানায়ক আল্লামা সুলতান যওক নদভী (দা.বা) দেওবন্দে গেলেন হযরতজী মাওলানা সাদ কান্ধলভী দা.বা. মনসুরপুরীকে নিয়ে সাইয়্যেদ সালমান হুসাইনি নদভির স্মৃতি চারণ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীর ইন্তেকালে বিশ্ববরেণ্য আলেমদের শোক আমীরুল হিন্দ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীঃ জীবন ও কর্ম আমার একান্ত অভিভাবক থেকে বঞ্চিত হলাম : মাহমুদ মাদানী মানসুরপুরীর ইন্তেকালে জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের গভীর শোক প্রকাশ দেওবন্দের কার্যনির্বাহী মুহতামিম সাইয়েদ কারী মাওলানা উসমান মানসুরপুরী আর নেই

ফিরে আসা ভাইদের মোবারকবাদ

ফিরে আসা ভাইদের মোবারকবাদ

সৈয়দ আনোয়ার আবদুল্লাহ: সারাদেশে তাবলীগের ভুলধারা থেকে মুল ধারায় অসংখ্য সাথী, মুবাল্লীগ ও আলেম উলামা ক্রমশ ফিরে আসছেন। মেহনতের সাথীরা তাদের শেকড় খোঁজে নিচ্ছেন। গাছ মূল থেকে কর্তন হলে বেশি দিন তাজা থাকেনা। কখনো কখনো কর্তৃত অংশ থেকে ডেম গজায়। কুন্তু সকল প্রচেষ্ঠাই সাময়িকী। একসময় মরে যায়। যতদিন যায় মাঠির সাথে পচে মিশে যায়।
সেদিন তাবলীগ জামাতে তিনদিনের জন্য গিয়েছিলাম। হঠাৎ মসজিদের ছাদ থেকে একটি টিকটিকি মাটিতে পড়ে লেজ ভেঙ্গে গেল। আমরা দুজন সাথী বিষয়টি লক্ষ্য করলাম। দেখলাম বেশ কিছু সময় কর্তৃত লেজ নড়াচড়া করছে। এটি দেখে পাশের সাথী বললো, ভাই, এই যে টিকটিকির লেজ এটি হলো মূলথেকে বিচ্ছিন্নের উদাহরন। কিছু সময় ছটপটি করে মূলের সাথে লেগে না থাকায় একসময় নিস্তব্ধ হয়ে যাবে। আর টিকটিকি যার লেজ কাটা পড়েছে তার সাথে আবার নতুন লেজ আস্তে আস্তে বড় হয়ে লেগে যাবে। টিকটিকি থেকে লেজ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় চলা ফেরায় কষ্ট সাময়িক। কিন্তু একসময় সব স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আর বিচ্ছিন্ন অংশ কখনো আর মূল অংশের সাথে প্রাণ নিয়ে স্বাভাবিক হতে পারবে না। এটিই খোদা পাকের নিয়ম।

আজ যারা তাবলীগের মূল মেহনত থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিলেন, তারা না পারছেন মেহনত করতে! না পারছেন সেখানে থাকতে। গাছ যতক্ষন মূলের সাথে থাকে ততোক্ষন ফুল দেয় ফল দেয় সজিব ও সুন্দর হয়ে উঠে। তাই এখন চোখের সামনে তাবলীগের বিচ্ছিন্নধারা থেকে দলে দলে সাথীরা তাদের পুরানো জায়গায়। তাদের মূল শিকড়ে ফিরে আসছেন।

তাবলীগের মুরুব্বীরাও এখন ভুল পথে চলে যাওয়া ভাইদের মহব্বত করে বুকে আগলে আনার কথা বলছেন। যারা মূলধারায় ফিরে আসছেন আমরা ইশারা দিয়েও তাদের কটাক্ষ করবো না। কোন কষ্ট দিব না। তাদের পরম মমতায় বুকে আগলে নিব।
হযরতজীর মতো নিজের জবানকে চুপ রাখব। সবর ও শুকুরের সাথে চলবে। আল্লাহ আখেরাতে এসব সবরের বদলা দান করবেন। করো সাথে তর্কে জড়াবো না। কাউকে কটাক্ক করব না। করো ভুলের পিছনে লাগব না। আমি আমার কাজে লেগে থাকবো। মুয়াজ্জিনেী মতে কানে আঙ্গুল দিয়ে দাওয়াতের কাজ করব। ফিরে আসা ভাইদের ইকরাম ও মহব্বত আরো বেশি করে করবো।
রাসুলে পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার চাচাকে হত্যাকারী ওয়াইসি ও হিন্দাকে ইসলামের নিচে আশ্রয় দিয়ে মহান সাহাবী হিসাবে সম্মানীত করেছেন। কট্টর কাফের উমর, আবু সুফিয়ান আর খালেদ বিন ওয়ালিদ তাবলীগের মেহনতে একসময় কত সম্মানীত সাহাবী হয়েছিলেন। এটিই সীরাতে নববীর আর্দশ। আমরা এই আর্দশকে আঁকড়ে থাকবো। আমাদের ভাইদের মহব্বতের সাথে বুকো আগলে নিব। উলামায়ে কারামকে পূর্বের ন্যায়ই মহব্বত ও দ্বীল খুলে ইকরাম এবং তাজিম করব। আল্লাহ আমাদেরকে দুনিয়া ও আখেরাতে সম্মানীত করবেন ইনশাআল্লাহ।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com