সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
চলতি মাসেই চালু হচ্ছে ৫০ মডেল মসজিদ অনলাইনে বিভিন্ন গ্রুপ ও পেইজ এডমিনদের নিয়ে মাশোয়ারার  বাংলাদেশে আরবি বিস্তারের মহানায়ক আল্লামা সুলতান যওক নদভী (দা.বা) দেওবন্দে গেলেন হযরতজী মাওলানা সাদ কান্ধলভী দা.বা. মনসুরপুরীকে নিয়ে সাইয়্যেদ সালমান হুসাইনি নদভির স্মৃতি চারণ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীর ইন্তেকালে বিশ্ববরেণ্য আলেমদের শোক আমীরুল হিন্দ আল্লামা ক্বারী উসমান মানসুরপুরীঃ জীবন ও কর্ম আমার একান্ত অভিভাবক থেকে বঞ্চিত হলাম : মাহমুদ মাদানী মানসুরপুরীর ইন্তেকালে জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের গভীর শোক প্রকাশ দেওবন্দের কার্যনির্বাহী মুহতামিম সাইয়েদ কারী মাওলানা উসমান মানসুরপুরী আর নেই

ভারতমনীষা মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খান আর নেই

ভারতের প্রসিদ্ধ আলেম মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খান ইন্তেকাল করেছেন। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছেন বলে জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম হাম দোস্ত-এর অনলাইন ভার্সন। মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খানের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকেও তার ইন্তেকালের খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

বুধবার রাতে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন বলে সূত্র নিশ্চিত করেছে।

হাম দোস্ত-এর অনলাইনে বলা হয়েছে, কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খানের ছেলে এক পোস্টের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন তাঁর পিতা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাকে ১২ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

মৃত্যুকালে মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খানের বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। তিনি ১৯২৫ সালের ১ জানুয়ারি ভারতের উত্তরপ্রদেশের আজমগড় এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ২ ছেলে ও ২ মেয়ের জনক ছিলেন।

বড় ছেলে জাফারুল ইসলাম খান দিল্লিভিত্তিক মিল্লি গেজেট পত্রিকার সম্পাদক। তিনি দিল্লির মাইনরিটি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ছিলেন। ছোট ছেলে সানিইয়াসনাইন খান ভারতের টেলিভিশন উপস্থাপক ও শিশু সাহিত্যিক।

তিনি ছিলেন আল্লামা আবুল হাসান আলী নদভী ও আল্লামা মনজুর নোমানীর অন্তরঙ্গ বন্ধু। তাবলীগ জামাতের দ্বীতিয় বিশ্ব আমীর হযরতজী মাওলানা মুহাম্মাদ ইউসুফ কান্ধলভীর প্রথম জীবনীগ্রন্থের লেখক, “আমার দেখা হযরতজী”। এছাড়া তাবলীগ জামাতের উপর তার লেখা “তাবলীগী তাহরীক” ব্শ্বিব্যাপি নানান ভাষায় অনুদিত জনপ্রিয় একটি গ্রন্থ। লিখেছেন কুরআনের তাফসিরসহ শ’য়ের উপর গ্রন্থ।

দিল্লি থেকে প্রকাশিত মাসিক রিসালা পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন তিনি। বাংলা ভাষায় তার বেশ কিছু বই অনুবাদ হয়েছে। মূলধারার আলেমদের সাথে তার লেখা-চিন্তায় বেশ কিছু আপত্তি রয়েছে। লেখালেখির পাশাপাশি বিষয়ভিত্তিক আলোচনার জন্যও তিনি ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে জনপ্রিয় ছিলেন।

মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খান ২০০০ সালের জানুয়ারিতে ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান পদ্মভূষণ, মাদার তেরেসা জাতীয় নাগরিক পুরস্কার এবং রাজিব গান্ধী জাতীয় পুরস্কার (২০০৯) লাভ করেন। তাকে আবুধাবিতে সাঈদীনা ইমাম আল হাসান ইবনে আলী শান্তি পুরস্কার (২০১৫) প্রদান করা হয়।

মাওলানা ওয়াহিদুদ্দিন খানের পরিবারে পক্ষ থেকে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়েছে।

সূত্র: ডেইলি পাকিস্তান, হাম দোস্ত

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com