বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:৪০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
‘তাবলিগের সেই ৪ দিনে যে শান্তি পেয়েছি, জীবনে কখনো তা পাইনি’ তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে লাখ লাখ রুপি লেনদেন হয়েছে: মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী দা.বা. (অডিওসহ) নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ সিরাত থেকে ।। কা’বার চাবি দেওবন্দের বিরোদ্ধে আবারো মাওলানা আব্দুল মালেকের ফতোয়াবাজির ধৃষ্টতা:শতাধিক আলেমের নিন্দা ও প্রতিবাদ একান্ত সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী :উলামায়ে হিন্দ নিজামুদ্দীনের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন তাবলীগের হবিগঞ্জ জেলা আমীর হলেন বিশিষ্ট মোহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল হক দা.বা. হযরতজীর চারপাশের মানুষগুলো (পর্ব-১) সকল তবলিগি মামলা আট সপ্তাহে শেষের নির্দেশ ভারত সুপ্রিম কোর্টের!  যে ৭ শ্রেণীর মানুষ আরশের ছায়া পাবে
শাপলার ছবি টঙ্গীর বলে পোষ্টারিং।দেশজুড়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া

শাপলার ছবি টঙ্গীর বলে পোষ্টারিং।দেশজুড়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া

ষ্টাফ রিপোর্টার |তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম |  সারা দেশে অনলাইন অফলাইনে ৫মে শাপলা চত্তরের আলোচিত ছবি দিয়ে পোষ্টার  করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে।  টঙ্গীর ময়দানে তাবলীগের মূলধারার  সাথে হেফাজতপন্থীদের সংঘর্ষের পর হেফাজতীদের মূলপুঁজি হেফাজতের সেই পুরানো ছবির ব্যাবহার। এনিয়ে সারাদেশে চলছপ বিরূপ পতিক্রিয়া। সবর্ত্র চলছে নিন্দার ঝড়।

দেশজুড়ে আজ একই প্রশ্ন, টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে  মাদরাসার ছাত্রদের সাথে তাবলীগের সাথীদের সংঘর্ষে পর একের পর মিথ্যাচার করে কথিথ জমহুর তাওহীদি জনতার নামে মিথ্যাচার করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে কেন। গতকাল রাজধানী ঢাকাসহতৌহিদী  জনতার নামে তাবলীগের বিশ্ব আমীর মাওলানা সাদ কান্ধলভী ও তাবলীগের সাথী এবং মূলধারার আলেমদের ফাঁসি চেয়ে পোষ্টার টানানো হয়। আর সেই পোষ্টারে ২০১৩সালের ৫মের অপারেশনের ছবি ছাপা হয়। দৈনিক মানবজমিন সহ সকল পত্রিকায় সেই ছবিটি ২০১৩সালের ৬ই মে প্রধান শিরোনামে ছাপা হয়েছিল। ছড়িয়ে পড়েছিল স্যোসাল মিডিয়াতে আলোচিত ছবি  হিসাবে। ভাইরাল হওয়া সেই ছবি এখন টঙ্গীর ময়দানের সংঘর্ষ  বলে ফাঁসি চাওয়া হচ্ছে। কি আজিব দুনিয়া।

সবার সামনে আজ একটি প্রশ্ন “২০১৩সালের শাপলা চত্তর ও হেফাজতের একাধিক  ভয়ংকর ছবিকে ১লা মপ টঙ্গীর ময়দানে তাবলীগের সাথীদের হাতে মাদরাসার ছাত্র ও আলেমদের হতাহতের ঘটনা বলে প্রচারের পেছনে মূল কারণ কি?

৫-ই মে শাপলা চত্বর ঘটনায় তাদের অভিযোগ এমন ছিলো যে সরকার হাজার হাজার কওমী ছাত্র উস্তাদ হত্যা,গুম করেছে বলে গুজব ছড়ানো হয়েছিল – যদিও হেফাযত পন্থিরা এখনো কোন সু-নিশ্চিত ভাবে নিহত হওয়া ব্যাক্তিদের অভিবাবকদের নাম ঠিকানা সহ তালিকা দিতে পারেন নি। শাপলার খুনের সওদাগরারই আজ আবার টঙ্গীর ময়দানের সংঘর্ষপর মূল উস্কানী দাতা।

গত কয়েকদিন ধরে হেফাজতি আলেমরা দেশের নানান স্থানে ব্যানার পেষ্টোন ও  পোষ্টারিং এর ছবিতে তাবলীগের সাথীদের হাতে মাদরাসার ছাত্র নির্যাতনের ছবি হিসাবে হেফাজতের ৫মের ছাত্রদের নির্যাতনের ছবি ব্যাবহার করে সরলমনা জনগনকে উসকে দিয়ে   বাংলাদেশে একটি ধর্মীয় সংঘার্ত তৈরি করতপ চাচ্ছে একটি বিশেষ মহল।

অনলাইনে গুজব  ছড়ানোর পাশাপাশি এতদিন চলছিল অফলাইনে  মিছিল মিটিংএ গুজবের কাজ। এটিকে ওজাহাতি আলেমরা এবার পূর্ণতা দিলেন পোষ্টারিং করে। ৫মে শাপলা চত্তরে সংঘটিত  হওয়া ছবিকে টঙ্গীর ময়দানের ছবি হিসাবে ছেপে পোষ্টার করা হয়েছে। আর গতকাল থেকে ঢাকা শহরসহ দেশের নানান স্থানে এই পোষ্টার দেয়ালে দেয়ালে লাগানো হয়েছে।

আর একই পোষ্টারে নির্যাতনকারী হিসাবে বিশ্ব বরণ্য আলেমদ্বীন, শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, জাতীয় দ্বীনী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান  আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসউদ ও বিশ্ব বিখ্যাত মুবাল্লীগ তাবলীগের আহলে শুরা সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম সহ আরো কিছু নবীণ প্রবীণ আলেমের ফাঁসি  ছেয়েছেন।

তাদের উদ্ভট  দাবী আর বানোয়াট ছেলেখেলার এই মিথ্যাচার দেখক বিস্মিত হচ্ছে গোটা জাতী। অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, কথিত জমহুরগন আর কত মিথ্যাচার করলে ক্লান্ত ও লজ্জিত হবেন?

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com