শুক্রবার, ১৭ মে ২০১৯, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

প্রবীণ মুবাল্লিগ মাওলানা ওয়াজেহ রশীদ হাসানী নদভীর ইন্তেকাল; বিশ্ব আমীরের শোক প্রকাশ।

প্রবীণ মুবাল্লিগ মাওলানা ওয়াজেহ রশীদ হাসানী নদভীর ইন্তেকাল; বিশ্ব আমীরের শোক প্রকাশ।

ইবনে আবদে রাব্বিহি, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম। বিংশ শতাব্দীর প্রখ‍্যাত ইসলামী দার্শনিক শায়খ আবুল হাসান আলী নদভী রহ. এর সুযোগ্য ভাগ্নে, প্রখ্যাত আরবী সাহিত‍্যিক, শিক্ষাবীদ, প্রবীণ মুবাল্লিগ, দারুল উলূম নদওয়াতুল উলামা লাখনৌর শিক্ষাসচিব, মাওলানা সাইয়‍েদ মুহাম্মদ ওয়াজেহ রাশীদ হাসানী নদভী ইন্তেকাল করেছেন। আজ বুধবার (১৬ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে ৮০ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন তিনি। ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

বিশ্বব্যপী দাওয়াত ও তাবলীগের আমীর, শায়খুল হাদীস আল্লামা সা’দ কান্ধলভী হাফিযাহুল্লাহ আজ বা’দ ফজর বয়ানে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মৃত্যকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৮০ বছর। তাঁর মৃত্যুতে মুসলিম বিশ্ব এক জগদ্বিখ্যাত আলেম ও ইসলামী চিন্তাবিদ থেকে বঞ্চিত হলো। মুসলিম উম্মাহর বুদ্ধিবৃত্তিক ও চিন্তাবৃত্তিক এই সংকটের সময় তাঁর মতো একজন রাহবারের চিরবিদায় মুসলিম উম্মাহর জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেলো। তিনি শায়খ আবুল হাসান আলী হাসানী নদভী রহ. এর ভাগ্নে ও হাতে গড়া ছাত্র ছিলেন। তিনি রেডিও সৌদির সাবেক আরবী ভাষ্যকার ও আন্তর্জাতিক ইসলামী সাহিত্য সংস্থা— রাবেতা আদবে ইসলামীর সেক্রেটারী জেনারেলের দায়িত্বও পালন করেন এবং জনপ্রিয় আরবী পত্রিকা ‘আর-রায়িদ’ এর সম্পাদক ছিলেন।

বিশ্বব্যাপী চলমান বুদ্ধিবৃত্তিক, মিডিয়া ও সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের মোকাবেলায় অকুতোভয় সৈনিকের মতো তিনি কলমী যুদ্ধ চালিয়ে গেছেন। অসংখ্য বুদ্ধিবৃত্তিক ও গবেষণাধর্মী গ্রন্থ ও প্রবন্ধ-নিবন্ধের মাধ্যমে তিনি পশ্চিমা সভ্যতা ও ওরিয়েন্টালিজমের ভিতে কাঁপন ধরিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন।

তাঁর মৃত্যুর সংবাদ শুনে দাওয়াত ও তাবলীগের বিশ্ব আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা সা’দ কান্ধলভী তাঁর বা’দ ফজর বয়ানে সমবেত মুবাল্লিগদের উদ্দেশ্যে বলেন “মাওলানা রাবে’ হাসান নদভীর ছোট ভাই মাওলানা ওয়াজেহ হাসান নদভী ইন্তেকাল করেছেন। তিনি একজন বর্ষীয়ান আলেম, বরেণ্য আরবী সাহিত্যিক ও দাওয়াত ও তাবলীগের কঠোর সমর্থনকারী ছিলেন। আপনারা যারা জামাতবন্দী হয়ে আল্লাহর রাস্তায় বের হচ্ছেন তাদের প্রতি আরজ হচ্ছে, আল্লাহর রাস্তায় চলাবস্থায় ঐসকল উলামায়ে কেরামের উপর ঈসালে সওয়াবের ব্যপারে বিশেষভাবে ‘ইহতিমাম’ করবেন যেসকল উলামায়ে কেরাম আমাদের পর্যন্ত এই দাওয়াত ও তাবলীগের দ্বীনী মেহনত পৌঁছে দিয়েছেন। যেসকল উলামায়ে কেরাম পূর্ববর্তী ৩ হযরতের যামানা থেকে নিজেদের সকল ব্যস্ততার পাশাপাশি দাওয়াত ও তাবলীগের মেহনত করে যাচ্ছেন এবং উম্মতের দোয়ারে দোয়ারে দ্বীন ও দ্বীনী মেহনত পৌঁছে দিয়েছেন তাদের জন্য ঈসালে সওয়াব করা প্রত্যের দাঈর উপর ওয়াজিবতূল্য। বর্তমানে যাদের মাধ্যমে দাওয়াত ও তাবলীগের কাজ চলছে তাঁদের চেয়েও আমাদের দু’আ ও সওয়াব রেসানীর বেশি হক্বদার হলেন পূর্ববর্তী বুযুর্গগণ, যাদের উসীলায় আমরা এই দ্বীনী মেহনত পেয়েছি। সবার উচিৎ, তাঁদের জন্য মাগফিরাত ও মর্যাদাবৃদ্ধির দু’আর পাশাপাশি এই দু’আও করা, যেন আল্লাহ তা’আলা তাদের এই খিদমতের বদলা পূর্ণরূপে দান করেন।

 

Facebook Comment





© All rights reserved © 2019 Tablignewsbd.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com
error: Content is protected !!