সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
জুবায়েরপন্থীদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম নিষিদ্ধের দাবী জানালেন হক্কানী উলামায়ে কেরাম মাদ্রাসাদস্যুদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্য দেওবন্দের নতুন মুহতামিম মাওলানা মুহাম্মাদ ক্বারী উসমান মানসুরপুরী ১৫ অক্টোবর থেকে খুলছে দারুল উলুম দেওবন্দসহ উত্তরপ্রদেশের মাদরাসাগুলো পাকিস্তানে সন্ত্রাসী হামলায় মাওলানা ড. আদিল খান  শহীদ হয়েছেন তাবলীগ ইস্যুতে দেওবন্দের খেলাফ যে কাজ হয়েছে বাংলাদেশে তাবলীগ নিয়ে অপপ্রচারে তীব্র ভর্ৎসনা ভারতীয় শীর্ষ আদালতের তাবলিগ মামলায় মোদী সরকারের সমালোচনায় সুপ্রিম কোর্ট মসজিদ আল হারামের শিক্ষক শায়খ মুহাম্মাদ বিন আলী আর নেই চলে গেলেন হৃদয়রাজ্যের আরেক বাদশা
বয়োবৃদ্ধ বুযুর্গকে নিয়ে আর কত খেলবেন জুমহুররা? ভিডিও সহ।

বয়োবৃদ্ধ বুযুর্গকে নিয়ে আর কত খেলবেন জুমহুররা? ভিডিও সহ।

ইবনে আবদে রাব্বিহী, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম| আবারো মাওলানা আহমদ শফীকে ঘিরে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলো তার এক অতিভক্ত। ভক্তির আতিশয্যে খেই হারিয়ে আল্লাহর হাতের সাথে তুলনা দিলো পীর সাহেবের হাত। মাহফিল শেষে বাইয়াতের জন্য উদ্বুদ্ধ করতে গিয়ে অতিভক্ত সাগরেদ স্বজোরে মাইকে বলতে থাকে যে, “আমরা আজ সকলে আহমদ শফীর হাতে বাইয়াত হচ্ছিনা, আল্লাহর হাতে বাইয়াত হচ্ছি।” (সংযুক্ত ভিডিওর ২৫ সেকেন্ড থেকে ৩১ সেকেন্ড পর্যন্ত) আল্লাহর সাথে এভাবে তুলনা দেওয়াটা সমীচীন মনে করছেন না পরিনামদর্শী উলামায়ে কেরাম।

তারা মনে করছেন, নেতৃত্বশূন্য কওমিধারা অস্তিত্বের লড়াইয়ে টিকে থাকতে আহমদ শফী হাফিযাহুল্লাহ কে ছাড়া আর কোন ভরসা পাচ্ছে না। তাই শতবর্ষী এই আল্লাহওয়ালা বুযুর্গকে শারিরীক অসুস্থতা সত্যেও বিভিন্ন মাহফিলে লোক জমানোর জন্য টানাহিচড়া করা হচ্ছে দেদারসে। যা সম্পূর্ন ‘অমানবিক’ মনে করছেন চিন্তাশীল উলামায়ে কেরাম।

বয়সের ভারে ন্যুজ এই বর্ষীয়ান আলেমে দ্বীন জিন্দেগীভর দ্বীনী খেদমতের উসিলায় যে সুনাম-সুখ্যাতি অর্জন করেছিলেন, আজ পরিণত বয়সে তার ভারসাম্যহীণতার সুযোগ কাজে লাগিয়ে সেই অর্জনগুলো ধুলিস্যাত করে দিচ্ছে তারই আশপাশের কিছু স্বার্থপর আলেম। আজকের এই ভিডিওটি সেই ধারাবাহিকতার একটি ক্ষুদ্র উদাহরণ মাত্র। যেটি অনেকেই সুদূরপ্রসারী ষড়যন্ত্র হিসেবে আশংকা করছেন।

চিন্তাশীল আলেমদের একজন এ বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেন, বয়োবৃদ্ধ আহমদ শফী সাহেবকে এভাবে টানাহিচড়ার ঘটনাগুলো থেকে আমরা দু’টি বার্তা পাচ্ছি। ১. যেকোন তুচ্ছাতিতুচ্ছ বিষয়ে হযরতকে জড়ানো এটাই প্রমাণ বহন করে যে, প্রচলিত কওমীধারা যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে ব্যর্থ হচ্ছে। তাই যেকোন ইস্যুতে হযরতই শেষ ভরসা। এই অচলাবস্থাটি আমাদের কওমিধারার জন্য অশনি সংকেত। যা সময় থাকতেই শুধরে নেওয়া প্রয়োজন। ২. ধর্মীও বাহাত্তর দলের পারষ্পরিক অনাস্থা ও প্রতিহিংসা। যেখানে সবাই ইমাম। মুক্তাদি হতে কেউ রাজী নয়। নিজেদের এই আদর্শিক দেওলিয়াত্ব ঢাকতেই মূলত তারা আহমদ শফীকে সর্ব ক্ষেত্রে অপব্যবহার করে থাকেন। যা মানবতাবিরোধী অপরাধও বটে।

হযরতের জীবনের শেষ দিনগুলো ভালো কাটুক, এমনটিই কামনা সকলের।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com