রবিবার, ২২ নভেম্বর ২০২০, ১২:১৭ পূর্বাহ্ন

মধুপুরের পীর সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন।

মধুপুরের পীর সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন।

ইবনে আবদে রাব্বিহী, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম। দেশের খ্যাতিমান আলেম ও বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের সহ-সভপতি মাওলানা আবদুল হামিদ (মধুপুরের পীর)-এর গাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও অর্থ লুটের ঘটনা ঘটেছে। ধারণা করা হচ্ছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে ইসলামী ঐক্যজোট ছেড়ে জমিয়তে যোগদানের ফলে সৃষ্ট কোন্দলের কারণে ঘটানাটি ঘটে থাকতে পারে।

এ সময় গাড়িতে আরও ছিলেন মাওলানা আবদুল হামিদের ছেলে মাওলানা উবায়দুল্লাহ কাসেমী, মধুপুর মাদরাসার শায়খুল হাদিস মুফতি কামরুজ্জামান, মুফতি শেখ বোরহান উদ্দিন ও মুফতি মিজানুর রহমান। গতকাল রাত সাড়ে ১২টার দিকে মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান থানার কলেজগেট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। জানা যায়, মুন্সিগঞ্জ মাহফিল শেষে সিরাজখানের কলেজগেট এলাকা থেকে মধুপুর ফেরার পথে রাস্তায় একদল অজ্ঞাত লোক গাড়ি থামায় এবং কিছু বুঝে ওঠার আগেই গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে। তারা সঙ্গে থাকা নগদ অর্থ ও উপস্থিত সবার মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। তবে শারীরিকভাবে কাউকে লাঞ্ছিত করা হয়নি।

FB_IMG_1542892036054

উল্লেখ্য যে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পীর সাহেব ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী হয়ে নৌকা প্রতীকে মহাজোটের মননোয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু মহাজোট এই নির্বাচনে কোন ইসলামী দলকে মননোয়ন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে তিনি মননোয়ন লাভের শর্তে জমিয়তে যোগদান করেন। গত ২২ নভেম্বর ‘১৮ তারিখে বাদ মাগরিব জামিয়া মাদানিয়া বারিধারায় জমিয়তের কার্যালয়ে ফরম পূরণের মাধ্যমে জমিয়তে যোগ দানের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। তখন থেকেই দূরত্ব তৈরী হতে থাকে ইসলামী ঐক্যজোট ও সমমনা দলগুলোর সাথে।

hamid-500x201

মাওলানা আবদুল হামিদ দীর্ঘ দিন ধরে ইসলামী ঐক্যজোটের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ইসলামী প্রায় সব ইস্যুতেই মাওলানা আবদুল হামিদের সরব ভূমিকা রয়েছে।

তার উপর এই হামলায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন সর্বস্তরের উলামায়ে কেরাম। তারা প্রকৃত দোষীদের গ্রেফতারপূর্বক বিচারের দাবী করেছেন।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com