শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:১৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
মসিবতে ধৈর্য ধারণ ও সবরের মহা পুরস্কার

মসিবতে ধৈর্য ধারণ ও সবরের মহা পুরস্কার

মোহাম্মদ মাসউদ, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম| আমি তোমাদের পরীক্ষা করিব কিঞ্চিত ভয় দ্বারা (যাহা বিরুধীদের পক্ষ হইতে অথবা বিভিন্ন দুর্ঘটনার কারণে আসিবে।) এবং কিঞ্চিৎ দরিদ্রতা ও ক্ষুধা দ্বারা, আর কিঞ্চিৎ মাল, জান ও ফল শস্যের কমতি দ্বারা । (অতএব, এই ধরনের যে সমস্ত জিনিস তোমাদেও সম্মুখে আসিবে উহার উপর ছবর করিবে।) আপনি ঐ সমস্ত ছবরকারীদেরকে সুসংবাদ শুনাইয়া দিন ( যাহাদেও অভ্যাস এই ) যে, যখন তাহাদের উপর কোন মুসীবত আসে , তখন তাহারা ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন পড়ে। ইহারাই ঐ সমস্ত লোক, যাহাদের প্রতি আল্লাহ তায়ালার বিশেষ বিশেষ রহমত এবং সাধারণ রহমতও রহিয়াছে। আর এই সমস্ত লোকই হেদায়াতপ্রাপ্ত। (বাকারাঃ ১৫৫-১৫৭)

ফায়দা: মুসীবতের সময় মৌখিক ইন্না লিল্লাহ পড়া উপকারী ও সওয়াবের কাজ । অন্তরেও উহার অর্থ বুঝিয়া পড়া আরো অধিক কার্যকর, সওয়াব ও প্রশান্তির কারণ । ইহার অর্থ এই যে, আমরা সকলেই (নিজেদের জান-মাল সহকারে) আল্লাহ তায়ালারই মালিকানাভুক্ত, (আর মালিকের জন্য নিজের মালিকানায় সর্বপ্রকার অধিকার খাটাইবার হক রহিয়াছে। তিনি যেভাবে চাহেন অধিকার খাটাইতে পারেন) এবং আমরা সকলেই আল্লাহ তায়ালারই দিকে ফিরিয়া যাইব। অর্থাৎ মৃত্যুর পর সকলকেই সেখানে যাইতে হইবে। এই জগতের ক্ষতি ও কষ্টসমূহের বদলা ও সওয়াব অধিক পরিমাণে সেখানে পাওয়া যাইবে। যেমন দুনিয়াতে যদি কোন ব্যক্তির কিছু ক্ষতি হইয়া যায় এবং তাহার পূর্ণ বিশবাস থাকে যে, অতি শ্রীঘ্রই এই ক্ষতির বিনিময়ে সে অনেক বেশী পাইয়া যাইবে, তবে উক্ত ক্ষতির কারণে তাহার সামান্য মাত্রও কষ্ট হয় না। এমনিভাবে, যদি আল্লাহ তায়ালার নিকট অধিক হইতে অধিক বদলা পাওয়ার একীন হইয়া যায়, তবে সামান্যতম কষ্টও থাকে না । কিন্তু আমাদেও মধ্যে ঈমান ও একীনের স্বল্পতার কারণে সামান্য দুঃখ, সামান্য কষ্ট, সামান্য ক্ষতিও আমাদের জন্য বড় মুসীবত হইয়া যায়। আল্লাহ তায়ালা কালামে পাকে এই দিকেও সংক্ষিপ্তভাবে ও বিস্তারিতভাবে অনেক জায়গায় সতর্ক করিয়াছেন যে , এই দুনিয়া কঠিন পরীক্ষার জায়গা এবং বিভিন্ন প্রকাওে পরীক্ষা হইয়া থাকে – কখনও সম্পদের প্রাচুর্যের দ্বারা যে, কিভাবে কামাই করিয়াছে এবং কিভাবে খরচ করা হইতেছে, আর কখনও দারিদ্র ও ক্ষুধার দ্বারা যে, উহাকে কিভাবে গ্রহণ করা হইতেছে- হা-হুতাশের মাধ্যমে, নাকি ধৈর্য ও নামাযের মাধ্যমে।

এই জন্যই বারবার ধৈর্য, নামায ও আল্লাহর দিবে রুজু হইবার জন্য উৎসাহিত করা হয় এবং এই ব্যাপারে সতর্ক করা হয় যে, তোমরা বর্তমানে পরীক্ষার মধ্যে রহিয়াছ; এমন যেন না হয় যে, এই পরীক্ষায় ফেল হইয়া যাও। নমুনা স্বরুপ কয়েকটি আয়াতের দিকে ইশারা করিতেছি-

কিছু আয়াতের বর্ণনা

১) এবং সাহায্য হাসিল কর ধৈর্য ও নামাযের দ্বারা। ( বাকারাঃ ৪৫ ) হযরত কাতাদা (রাযিঃ ) বলেন , এই দুইটি জিনিস আল্লাহর পক্ষ হইতে সাহায্য; তোমরা এইগুলি দ্বারা সাহায্য লও । হযরত ইবনে আব্বাস (রাযিঃ) বলেন, আমি একবার হুযূর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সহিত সওয়ারীর উপর ছিলাম। তিনি বলিলেন, হে বালক! আমি তোমাকে কয়েকটি কথা বলিতেছি । আল্লাহ তায়ালা এইগুলির দ্বারা তোমার উপকার করিবেন। আমি আরজ করিলাম, অবশ্যই বলুন। তিনি এরশাদ করিলেন, আল্লাহর হেফাজত কর ( অর্থাৎ তাহার হকসমূহ আদায় করে) আল্লাহ তায়ালা তোমার হেফাজত করিবেন। আল্লাহ তায়ালার ( হকসমূহের) হেফাজত কর, তুমি তাহাকে (সর্বদা নিজের সাহায্যের জন্য ) সম্মুকে পাইবে। স্বচ্ছলতায় আল্লাহ তায়ালাকে চিনিয়া লও (অর্থাৎ স্বরণ করিয়া লও) তিনি তোমাকে মুসীবতের সময় চিনিবেন ( সাহায্য করিবেন) ।

আর ইহা উত্তমরুপে জানিয়া লও যে, যে কোন মুসীবত তেমার উপর আসিয়াছে, উহা কখনও তোমার উপর হইতে সরিবার ছিল না । আর যাহা আসে নাই তাহা কখনও তোমার উপর হইতে আসিবার ছিল না । যদি সমস্ত মখলূক সকলেই মিলিয়া চেষ্টা করে যে, তাহারা তোমাকে কিছু দিবে, আর আল্লাহ তায়ালা উহার ইচ্ছা না করেন , তবে তাহারা সকলে কখনও এই ক্ষমতা রাখে না যে, তোমাকে কিছু দিয়া দিবে। আর যদি তাহারা সকলে মিলিয়া তোমার উপর হইতে কোন মসীবত দূও করিতে চায় আর আল্লাহ তায়ালা না চাহেন, তবে তাহারা কখনও ঐ মুসীবতকে হটাইতে পারিবে ন। তকদীরের কলম এমন প্রত্যেক জিনিসকে লিখিয়া ফেলিয়াছে, যাহা কেয়ামত পর্যন্ত সংঘটিত হইবে। যখন সাহায্য চাও তখন একমাত্র আল্লাহর নিকটই সাহায্য চাহিও, যকন ভরসা কর তখন একমাত্র আল্লাহর উপরই ভরসা করিও ।

ঈমান, একীনও শোকরের সহিত আল্লাহ তায়ালার জন্য আমল কর । ভাল করিয়া জানিয়া লও যে, অপছন্দনীয় বিষয়ের উপর ছবর করা অনেক উত্তম জিনিস । আল্লাহর সাহায্য ছবরের সহিত রহিয়াছে, আর মুসীবতের সহিত আরাম রহিয়াছে এবং অভাবের সহিত প্রশস্ততা রহিয়াছে। অর্থাৎ যখন কোন কষ্ট হয় , তখন বুঝিয়া লও যে, এখন কোন আরামও হাসিল হইবে। যখন অভাব দেখা দেয় তখন বুঝিয়া লও যে, এখন সচ্ছলতাও আসিবে।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com