বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
হাটহাজারী মাদরাসার সামনে পুলিশের সতর্ক অবস্থান : রুহিকে গনধোলাই কেন হাটহাজারী মাদরাসা ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল? হাটহাজারী মাদরাসায় ছাত্রদের বিক্ষোভ ভাঙচুর : কওমীতে নজিরবিহীন ঘটনা ‘তাবলিগের সেই ৪ দিনে যে শান্তি পেয়েছি, জীবনে কখনো তা পাইনি’ তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে লাখ লাখ রুপি লেনদেন হয়েছে: মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী দা.বা. (অডিওসহ) নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ সিরাত থেকে ।। কা’বার চাবি দেওবন্দের বিরোদ্ধে আবারো মাওলানা আব্দুল মালেকের ফতোয়াবাজির ধৃষ্টতা:শতাধিক আলেমের নিন্দা ও প্রতিবাদ একান্ত সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী :উলামায়ে হিন্দ নিজামুদ্দীনের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন তাবলীগের হবিগঞ্জ জেলা আমীর হলেন বিশিষ্ট মোহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল হক দা.বা.
তাবলিগ নিয়ে নোংড়া রাজনৈতিক খেলা আর দেখতে চাইনা

তাবলিগ নিয়ে নোংড়া রাজনৈতিক খেলা আর দেখতে চাইনা

মো আবদুল্লাহ, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম|

তাবলিগ নিয়ে বিবাদমান দুই পক্ষের এক হয়ে যাওয়া অবশ্যই সকলের জন্য খুবই আনন্দের বিষয়, এতে কোন সন্দেহ নেই। বরং এর জন্যই আমরা অধির আগ্রহে এতদিন অপেক্ষামান ছিলাম।

কিন্তু হঠাৎ করে এত সহজে (তাদের ভাষায়) গোমরাহদের সাথে এক হওয়া কিভাবে বা কোন প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করা হলো, এ বিষয়টি সর্ব সাধারণের নিকট পরিস্কার হওয়া জরুরী এবং লিখিত হওয়া প্রয়োজন।

গত ২রা ডিসেম্বর ২০১৮ ইং সংবাদ সম্মেলনে ক্বারি জুবায়ের সাহেব এক হওয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে তিনিই পাল্টা প্রশ্ন করেছিলেন এই মর্মে যে “কে কার সাথে এক হবে? তারা আমাদের সাথে নাকি আমরা ইসলামি শরিয়ত বিসর্জন দিয়ে তাদের সাথে মিলে যাবো”?

যাই হোক, গত বছরের অভিজ্ঞতা অনুযায়ি আমাদের জানানো হয়েছিল যে, হযরতজি সাদ কান্ধলভী (দা.বা) ইজতিমায় অংশ নিবেন। এর ভিত্তিতে দেশ-বিদেশের সাথিদের অংশগ্রহনে ইজতিমার মাঠ ভরপুর হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ঢাকা এয়ারপোর্ট থেকে হজরতজি (দা.বা) টঙ্গির ময়দানে যেতে ব্যর্থ হলেন। ফলশ্রুতিতে, সাথিরা ইজতেমাস্থল পরিত্যাগ করে ফিরে আসার সময় ব্যাপক প্রতিবন্ধকতার স্বীকার হয়। এমনকি বিদেশী মেহমানদেরকেও ইজতিমা শেষ না হওয়া পর্যন্ত মাঠে অবস্থান করতে বাধ্য করা হয়।

তাহলে, এবারও কি সেই একই কৌশলের পুনরাবৃত্তি করা হচ্ছে? তা না হলে একিভূতকরণের প্রক্রিয়াটি কেন পরিস্কার করা হচ্ছেনা?

ক্বারি জুবায়ের সাহেব কি উনার শরিয়ত বিসর্জন দিয়ে হযরতজির (দা.বা) নিকট নতুন করে বাইয়াত গ্রহণ করতে সম্মত হয়েছেন নাকি অন্য কিছু?

এদিকে, ক্বারি সাহেবের সুপুত্র জনাব হানজালা এই একিভূতকরণ ঘোষনার পর পরই লাইভে এসে পূর্বের ন্যায় বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দিয়েছে। এটি কেবল ইজতেমার জন্য ঐক্য। হযরতজী আসবেন না।

এটি কি নির্বাচনী ঐক্যের মতো কেবল একটি সময়ের জন্য ঐক্য। এতো বড় বিশাল কুরবানীওয়ালা মজমাকে কিসের মোহে আমরা রাজনৈতিক এই ময়দানে তুলে দিয়ে বিভ্রান্ত করব। বিষয়গুলো সরকারীভাবে পরিস্কার হোক। অপপ্রচার ও গালাগালি বন্ধ হোক। মাওলানা সাদ সাহেব আসবেন, সরকার পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রণ করুক। সরকার কাকে এতো ভয় পান। কারো ভয়ে সাদ সাহেব না আসলে সেই ভয় ভয়ের স্থানে থাকুক। আমরা আমাদের মজলুম অবস্থানে থাকি। সব কিছু লিখিত পরিস্কার না করে আবার তাবলিগ নিয়ে তাদের রাজনীতির নোংরা খেলা আমরা আর দেখতে চাইনা।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com