রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:২৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
আল্লামা শফীর ইন্তেকালে আরশাদ মাদানীর শোক আল্লামা আহমদ শফী রহ. এর মাগফিরাত কামনায় সাভারের মারকাজুল উলুমে বিশেষ দোয়া আল্লামা শফীর ইন্তেকালে মাহমুদ মাদানীর শোক আল্লামা শাহ আহমদ শফীর ইন্তেকালে জাতীয় কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড এর শোক হাটহাজারী মাদরাসা বন্ধ ঘোষনা এক আল্লাহ জিন্দাবাদ… হাটহাজারী মাদরাসায় ছাত্রদের বিক্ষোভ ভাঙচুর : কওমীতে নজিরবিহীন ঘটনা ‘তাবলিগের সেই ৪ দিনে যে শান্তি পেয়েছি, জীবনে কখনো তা পাইনি’ তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে লাখ লাখ রুপি লেনদেন হয়েছে: মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী দা.বা. (অডিওসহ) নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ
আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা বয়কটের ঘোষণা দিলেন হেফাজত নেতা

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা বয়কটের ঘোষণা দিলেন হেফাজত নেতা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি; তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম

আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা বয়কটের ঘোষণা দিলেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা আবদুল আউয়াল। তিনি বলেন, আলেম-উলামাদের বাদ দিয়ে ইজতেমা করা সম্ভব না। যে ঘটনায় রক্তপাত হয়েছে, মানুষের প্রাণ গেছে, সেইসব ঘাতক দলের ক্ষমা প্রার্থনা বা ভুল স্বীকার ছাড়া আলেম-উলামারা এ ইজতেমাকে মানবে না। কয়েকদিন আগে আমরা যাদের ফাঁসি চেয়েছি তাদের তত্বাবধানে ইজতেমায় অংশগ্রহণ করা আমাদের পক্ষে অসম্ভব। প্রয়োজনে বয়কট করবো।

মাওলানা আবদুল আউয়াল নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমীর। গত ২০১৩ সালের ৫ ও ৬ মে লংকাকান্ডের ঘটনায় মামলাও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। যার মধ্যে কয়েকটি মামলাতে তিনি কারাভোগও করেছেন। যদিও তাকে সামনে রেখে হেফাজতের একটি গ্রুপ আদায় করে নিয়েছেন অনেক রাজনৈতিক সুবিধা।

নারায়ণগঞ্জ শহরের অন্যতম বৃহৎ মসজিদ ডিআইটি রেলওয়ে জামে মসজিদের খতিব আবদুল আউয়াল প্রায়শই জুমআর নামাজের খুতবায় ধর্মীয় বয়ানের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক বিষয়ে বয়ান করতে গিয়ে বিপাকে পড়েন। তার বিতর্কিত বক্তব্য ও অসৌন্যমূলক আচরণের কারণে শহরের আমলাপাড়া মসজিদে নারায়ণগঞ্জে দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। এক পর্যায়ে আবদুল আউয়ালকেও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়।

আবদুল আউয়াল গত শুক্রবার ২৫ জানুয়ারী জুমআর খুতবার বয়ানের শেষ দিকে তুলে আনেন ইজতেমা প্রসঙ্গ। তিনি বলেন, কয়েকদিন আগে যখন আলেম-উলামারা টঙ্গির ময়দানে গিয়েছিল তখন সাদপন্থীরা হামলা করে রক্তাক্ত করেছিল। অনেকে মারা গেছেন। অনেক তাজা যুবকের হাত পা ভেঙ্গে গিয়েছে। অনেকে এখনো হাসপাতালের বিছানায় কাঁতরাচ্ছেন। নারায়ণগঞ্জে আমাদের হুমকি দেওয়া হয়েছে। গুলি করার হুমকির পাশাপাশি হাত পা ভেঙে দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। আমাদের ভয় দেখানো হয় সন্ত্রাসী কায়দায়। এমতাবস্থায় আমাদেরকে বাদ দিয়ে কাকরাইলের বিবাদমান দুটি গ্রুপ মিলে গেছে। এখন আর তাবলীগীদের নিকট আমাদের মত হুজুর আর আলেম-উলামাদের কোন দরকার নাই, কদরও নাই। অথচ এক সময় ইজতেমা আয়োজনে কওমি মাদ্রাসার ছাত্র সহ আমাদের মত আলেমদের প্রয়োজন হতো। কিন্তু এখন তারা মিলে গেছে তাই আমাদের দরকার নাই।

বিষয়টি হলো, গর্ত খুঁড়ে ভেতরে একটি ইদুর ঢুকানো হয়েছে। এখন বাইরে দিয়ে সেই গর্তের মুখ বন্ধ করা হলেও মনে রাখতে হবে, ভেতরে ইদুর ঠিকই আছে। এ ইদুর যেকোন সময়ে বান কেটে বেরিয়ে আসবে। পকেটে পিস্তল রেখে বুকে বুক মিলিয়ে দিলেই সব সমাধান হয়ে যায় না। যদি আলেম-উলামা আর হেফাজতে ইসলামকে বাদ দিয়ে ইজতেমা করা হয় তাহলে ভালো, তোমরা গিয়ে করো। আমরা আলেম-উলামারা সেই ইজতেমা বয়কট করবো, বর্জন করবো যতদিন না হক্কানী পথে তাবলীগ না ফিরবে। বয়ানে বেশ কড়া ভাষাতেই কথাগুলো যোগ করেন আবদুল আউয়াল।

প্রসঙ্গতঃ সম্প্রতি সচিবালয়ে তাবলীগ জামাতের বিবাদমান দুইপক্ষকে নিয়ে বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী যৌথভাবে জানিয়েছেন যে, এবারের ইজতেমা তৃতীয় পক্ষকে বাদ দিয়ে এক পর্বে ঐক্যবদ্ধভাবে হবে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ সভার সিদ্ধান্ত জানিয়ে বলেন, ইজতেমা একটাই হবে। কোনো বিভক্তি হবেনা। বহিরাগত তৃতীয় পক্ষের কেউ ইজতেমার পরিচালনায় হস্তক্ষেপ করতে পারবে না। আর মাওলানা সাদ সহ যেকোন বিদেশী মেহমান আসতে কোন বাঁধা নেই। তাবলীগ জামাতের দুই গ্রুপের সাথে বৈঠকে চূড়ান্তভাবে এই সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com