শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এক আল্লাহ জিন্দাবাদ… হাটহাজারী মাদরাসার সামনে পুলিশের সতর্ক অবস্থান : রুহিকে গনধোলাই কেন হাটহাজারী মাদরাসা ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল? হাটহাজারী মাদরাসায় ছাত্রদের বিক্ষোভ ভাঙচুর : কওমীতে নজিরবিহীন ঘটনা ‘তাবলিগের সেই ৪ দিনে যে শান্তি পেয়েছি, জীবনে কখনো তা পাইনি’ তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে লাখ লাখ রুপি লেনদেন হয়েছে: মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী দা.বা. (অডিওসহ) নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ সিরাত থেকে ।। কা’বার চাবি দেওবন্দের বিরোদ্ধে আবারো মাওলানা আব্দুল মালেকের ফতোয়াবাজির ধৃষ্টতা:শতাধিক আলেমের নিন্দা ও প্রতিবাদ একান্ত সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী :উলামায়ে হিন্দ নিজামুদ্দীনের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন

বাড়ছে তৃনমূল তাবলীগের সাথীদের চাপ

ষ্টাফ রিপোর্টার,  তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম | আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারী সরকারী সিদ্ধান্তের আলোকে টঙ্গীর ময়দানে একত্রে বিশ্ব ইজতেমা করার ঘোষনা হলেও জুবায়েরপন্থীদের ঐক্যবিরোধী একের পর এক কাজের কারণে  এখন অনিশ্চিত পথে সম্মিলিত ইজতেমা। ইজতেমা নিয়ে বাড়ছে তৃনমূলের তাবলীগের সাথীদের চাপ। মাওলানা জুবায়েরের ঐক্য বিরোধী আচরণে ক্ষুব্ধ তারা।

 

সরকারের চিন্তাধারা ও ঐক্যপক্রিয়াকে শ্রদ্ধা দেখিয়ে ঐক্যের চেষ্টায় কাকরাইলের আহলেশুরা সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম ও খান মোহাম্মদ সাহাবুদ্দীন নাসিম রাজি হলেও নিজামুদ্দিন মারকাজের অধিনে ছয় যুগ ধরে চলে আসা বিশ্ব ইজতেমা পূর্বের মতোই বিশ্ব আমীর মাওলানা সাদ ও নিজামুদ্দিন মারকাজের তত্বাবধানেই যেকোন মূল্যে করতে চান তাবলীগের ৬৪জেলার সাথীরা। তারা কোনভাবে মাওলানা জুবায়েরের সাথে রাজনৈতিক স্টাইলে ইজতেমা নামক কোন সমাবেশে শরিক হতে আগ্রহী নন। তারা মনে করেন মাওলানা জুবায়ের তার কথার উপর স্থীর থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন।  তিনি এখন রাজনৈতিক আলেমদের দ্বারা প্রভাবিত ও নিয়ন্ত্রিত।

 

সরকারের প্রচেষ্টায় তাবলীগের শীর্ষ মুরুব্বীরা সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে একত্রে বিশ্ব ইজতেমার ব্যাপারে সম্মত হলেও,  মাওলানা জুবায়েরের একের পর একেক সিদ্ধান্ত ও উগ্রপন্থী ঐক্যবিরোধী আচরণন কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তৃনমূলের তাবলীগের সাথীরা।

 

এবিষয়ে সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, আমাদের জেলা পর্যায়ের দায়িত্বশীলরা জানিয়ে দিয়েছে, বিগত বছরগুলোর মতো যদি নিজামুদ্দীন মার্কাজের মুরব্বিদের তত্ত্বাবধানে ইজতেমা না হয়, তাহলে তারা অংশ নিবেন না।

 

তাহলে কি আপনারা ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না? এ প্রশ্নের উত্তরে সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, আমরা আমাদের দাবি জানিয়েছি, জেলার সাথীদেরও প্রচুর চাপ রয়েছে। এখন যেভাবে চলছে, সেভাবে হলে আমাদের সাথীরা হয়তো অংশ নেবে না। সামনে আরেকটি মিটিংয়ে বিষয়টি সমাধান হবে বলে আশা করি।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com