রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০২:০৮ অপরাহ্ন

তাবলীগ জামাত নিয়ে দেওবন্দ কথা বলার অধিকার রাখে না : আল্লামা সালমান নদভী (ভিডিও সহ

তাবলীগ জামাত নিয়ে দেওবন্দ কথা বলার অধিকার রাখে না : আল্লামা সালমান নদভী (ভিডিও সহ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, তাবলীগ  নিউজ  বিডিডটকম | এবার শায়খুল ইসলাম আল্লামা সাদ কান্ধলভী ও দারুল উলুম দেওবন্দ নিয়ে মূখ খুললেন ভারতের সর্বজন শ্রদ্ধেয় আরেক আলেমেদ্বীন নদওয়াতুল উলামার আল্লামা  সালমান হোসাইন নদভী দা.বা.

এই হিমালয়ান উপমহাদেশে যে কয়জন বিরাট মাপের ইসলামী ব্যক্তিত্ব একদিকে বুদ্ধিবৃত্তিক অঙ্গণে, ইতিহাস, সাহিত্য-সাংবাদিকতা, ইসলামী দর্শন শিক্ষা-সাংস্কৃতিক দিক থেকে এ অঞ্চলের কোটি কোটি মানুষের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তেমনি এই সঙ্গে আধ্যাত্মিক দিক থেকেও অনাড়ম্বর সাধক পুরুষ হিসাবে মানুষের কাছে অনুকরণীয় আদর্শ হিসাবে পথিকৃতের ভূমিকা পালন করছেন, তাদের মধ্যে মওলানা সালমান নদভী একজন।

বর্তমান সময়ে হযরত আল্লামা সৈয়দ সালমান নদভী দাঃবাঃ হলেন সৈয়দ আবুল হাসান আলি নদভী রহঃ এর বিকল্প হিসেবে ধরা হয় এবং আলি মিয়া নদভী রহঃ যেসমস্ত বৈচিত্র্যময় ও ব্যাপক বিস্তৃত দায়িত্ব পালন করতেন এবং সারা বিশ্বব্যাপি দ্বীনি মিশন নিয়ে চষে বেড়াতেন,বলা যায় তার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে সুচারুরূপে সালমান নদভী সাহেব দাঃবাঃ সেসব দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন । সম্পর্কে আবুল হাসান আলি নদভী রহঃ এর দৌহিত্র হন , আমিরুল মুজাহিদিন শাহ ইসমাইল শহিদ রহঃ এর রক্ত তার ধমনিতে বইছে । লাখনৌর এ পরিবার  আহলে বাইত অথার্ৎ রাসুলে করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সরাসরি বংশধর ।

 

হযরত আল্লামা সৈয়দ সালমান নদভী দাঃবাঃ একটি অনলাইন টিভিকে দোয়া সাক্ষাৎকারে তাবলীগের সমসাময়িক বিষয় নিয়ে যেযেসব কথা বলেছেন এর চুম্বকাংশ তাবলীগ নিউজ  বিডিডটকমের পাঠকের সামনে তুলে ধরা হল।

 

” মাওলানা সাদ সাহেবের নাম করে যেসব বয়ানের কাটপিস পাঠানো হয়েছিল দেওবন্দ সেসবের উপর ভিত্তি করেই তাদের মতামত দিয়েছিল।

মাওলানা সাদ সাহেব দাঃবাঃ পরিপূর্ণ শ্রদ্ধা রেখে দেওবন্দের কথার উপর একের পর এক লিখিত ও মৌখিকভাবে রুজু করেছেন । যেখানে তাবলীগ জামাতের মত বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী এবং বৃহত্তম ধর্মীয় সংগঠনের একজন প্রধান, একটা দেশের একটা ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দারুল ইফতার কথামত বারবার রুজু করছেন উচিত তো ছিল তার এই রুজুকে গ্রহণ করা অথচ তা করা হয় নাই যা ফেতনাকে উস্কে দিয়েছে।

 

দেওবন্দ এবং দেওবন্দ অনুসারীদের বোঝা উচিত দেওবন্দ পুরা বিশ্বের জন্য নয় যে পুরা বিশ্ব মুসলিম তাদের কথায় চলবে বা চলতে হবে এমনকি ভারতের অন্যান্য প্রদেশের দ্বীনী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কেরালা, তামিল নাড়ুতেও তাদের কথা গ্রহণযোগ্য নয় । দেওবন্দ অনুসারীদের কাছে দেওবন্দের যে মাকাম বা মর্যাদা সেটাত মরক্কো, হিজাজ, লিবিয়া, মিশর, তিউনিসিয়ায় নাই । দেওবন্দ অনুসারীরা এমনভাবে দেওবন্দের কথা উপস্থাপন করে যে মনে হয় এটাই পুরা উম্মতের, বিশ্ব মুসলিমের কথা,মতবাদ অথচ এটা একটা ধোঁকা, অনেক বড় ধোঁকাবাজি এবং প্রতারণা নিজেদের সাথে এবং পুরা উম্মতের সাথে ।

 

মরক্কোর দারুল ইফতা কি বলছে, ইন্দোনেশিয়ার দারুল ইফতা কি বলছে এর সবই আমাদের বিবেচনা করতে হবে । উম্মত অনেক বড় আর বিস্তৃত , হাজারো মত পথ, আন্দোলন, সংগঠন, জামাত উম্মতের মধ্যে বিদ্যমান । যতক্ষণ পর্যন্ত না পুরা উম্মত কোন বিষয়ের উপর একমত না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত কোন দেশের কোন একটা দারুল ইফতার ফতোয়ার কোন গুরুত্ব নাই , হাইসিয়াত নাই। এটা বড়জোর ঐ বিশেষ গ্রুপের ফতোয়া হিসেবে বিবেচিত হবে যারা তাদের অনুসারী যারা তাদের ফতোয়াকে কবুল করেছে তারা চাইলে তাদের ফতোয়া অনুসরন করুক।

 

আমার নজরে (সালমান নদভী) দেওবন্দের ফতোয়া, মাজাহেরের ফতোয়া, নাদোয়ার ফতওয়া এটা যার যার নিজস্ব ফতওয়া, এসব ফতোয়াকে পুরা উম্মতের ফতওয়া মনে করা এবং শরিয়তের ফয়সালা মনা কক্ষনই উচিত হবে না ।

উম্মত অনেক বড়, আমেরিকা থেকে অস্ট্রেলিয়া , উত্তর থেকে থেকে দক্ষিণ লাখে লাখে উলামা রয়েছেন আর এখন ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে ধরনের ইজমার কথা বলা হচ্ছে তা অতীতে কক্ষনই ছিল না, এখনও এর গ্রহণযোগ্যতা নাই ভবিষ্যতেও থাকবে না ।

 

মাওলানা সাদ সাহেবের চিন্তাভাবনা কথা নিয়ে যদি দেওবন্দের কোন আপত্তি থাকে তো যারা দেওবন্দের অনুসারী তারা সেটা মানুক কিন্তু পুরা উম্মত তো দেওবন্দের অধীন নয় , না হিন্দুস্তান অধীন, না পাকিস্তান অধীন , না বাংলাদেশ অধীন… আর পুরা দুনিয়ার কথা তো বাদই দিলাম। আর তাবলীগ জামাত পুরা বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত আমেরিকা থেকে অস্ট্রেলিয়া।

এরকম একটা জামাত যারা সারা দুনিয়াতে বিস্তৃত সেই জামাত নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত দেয়ার এখতিয়ার দেওবন্দের মত একটা আঞ্চলিক প্রতিষ্ঠানের নাই যেটা দেওবন্দ নিজেও জানে আমরাও জানি ! দেওবন্দের একটা মাকাম কিংবা এখতিয়ার আছে কাদেরকে তারা ফয়সালা দিবে সেই মাকাম অনুযায়ী তারা তাবলীগ জামাত নিয়ে কথা বলার অধিকার রাখে না । দেওবন্দের ফতওয়া আরব দেশগুলোতে অচল, মিশরের ফিকহি মহলে অচল, মরক্কোতে, লিবিয়াতে, আফ্রিকাতে সবজায়গায় অচল।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com