রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৮ অপরাহ্ন

সম্পাদকীয়: বিশ্ব ইজতেমায় সরকারী সহযোগিতা বিশ্বে রোল মডেল

সম্পাদকীয়: বিশ্ব ইজতেমায় সরকারী সহযোগিতা বিশ্বে রোল মডেল

সৈয়দ আনোয়ার আবদুল্লাহ | তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম

চলমান বিশ্ব ইজতেমার আয়োজনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নানান সহযোগিতা গোটা বিশ্বে রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। হজ্জের মৌসুমে সৌদি সরকারের ব্যাপক সহযোগিতার পর বিশ্ব ইজতেমাকে ঘিরে বাংলাদেশ সরকারের আন্তরিক সহযোগিতা অনন্য নজির স্থাপন করেছে। ধর্মীয় কাজে রাষ্ট্রের এমন আন্তরিক অবস্থান পৃথিবীতে এক বিরল দৃষ্টান্ত।

৫কোটি টাকা সরকারী বাজেট ছাড়াও এবছর তাবলীগের বিবাদমান দুপক্ষের দন্দ মিটিয়ে বিশ্ব ইজতেমা করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাত আন্তরিকতা ছিল চোখে পড়ার মত।এছাড়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ যে ভুমিকা পালন করেছেন এর জন্য তারা লক্ষ লক্ষ মুসল্লীর দোয়া ও ভালবাসা পাবেন অবিরত।

বিশ্ব ইজতেমা ও তাবলীগের কাজে এই সহযোগিতার যাত্রা শুরু করেছিলেন, বাংলাদেশের মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনিই টঙ্গীর মাট ও কাকরাইলের জায়গা দিয়েছিলেন। তার সুযোগ্যকন্যা শেখ হাসিনা মহান পিতার পথ ধরে সে পথেই আন্তরিকতার সাথে দ্বীনের খেদমত করে যাচ্ছেন।

এবছর বিশ ইজতেমার সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং এর জন্য বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ইজতেমা মাঠে ৫ টি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। গাজীপুর সিটি করপোরেশন, গাজীপুর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাব, আনসার ও ভিডিপির কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে।

সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশ প্রশাসনের ১৫ টি ওয়াচ টাওয়ার, র‌্যাবের ১০ টি ওয়াচ টাওয়ার, মুসল্লিদের জন্য ৩৫০ টি অস্থায়ী টয়লেট নির্মাণ, অজু, গোসল, পয়োনিষ্কাশন ও সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ১৩ টি গভীর নলকূপ থেকে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন ৩ কোটি ৫৪ লক্ষ গ্যালন সুপেয় পানি সরবরাহের ব্যবস্থাও রয়েছে। এ ছাড়া রয়েছে আকাশ ও নৌ-পথে পুলিশ, র‌্যাবের নিয়মিত টহল।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ওয়াইএম বেলালুর রহমান বাসসকে জানান, টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমাকে পুরোপুরি নিরাপত্তা চাঁদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে।
গাজীপুর জেলা তথ্য অফিসার এম এম রাহাত হাসনাত জানিয়েছেন, ইজতেমার সময় টাঙ্গাইল রোড হয়ে আগত মুসল্লিদের বহনকারী যানবাহন জয়দেবপুর থানাধীন ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ মাঠে অবস্থান করবে। ময়মনসিংহ হয়ে আগত মুসল্লিদের বহনকারী যানবাহন চান্দনা চৌরাস্তা হাইস্কুল মাঠে অবস্থান করবে। মিরের বাজার রাস্তা হয়ে আগত মুসল্লিদের বহনকারী যানবাহন মীরের বাজার মাঠে মীরের বাজার চৌরাস্তা হতে তিন শ ফিট রেল লাইন ক্রসিং এর আগে অবস্থান করবে।

সকল সরকারি যানবাহন আনারকলি সিনেমা হল টঙ্গী, শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামের বিপরীতে, টঙ্গীর কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিল কম্পাউন্ড, টেলিফোন শিল্প সংস্থা, টঙ্গী সফিউদ্দিন সরকার একাডেমি মাঠ প্রাঙ্গণ এবং টঙ্গী সরকারি কলেজ মাঠে অবস্থান করবে।
আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণকারী ভিআইপিগণ আব্দুল্লাহপুর হতে কামারপাড়া ব্রিজ হয়ে বিশ ইজতেমার প্রথম গেটে প্রবেশ করবে।

এ ছাড়া আখেরি মোনাজাতের সময় জরুরি প্রয়োজনে গাজীপুর হতে ঢাকা অভিমুখে গমনের জন্য ভোগড়া মোড় গাজীপুর হতে মীরের বাজার হয়ে ঢাকা রোড ব্যবহার করা যাবে। বিভিন্ন জেলা সমূহ হতে ঢাকাগামী যানবাহন বাসন থানাধীন চান্দনা চৌরাস্তা হতে টঙ্গী হয়ে ডিএমপি এলাকায় প্রবেশের পরিবর্তে চৌরাস্তা, কোনাবাড়ী, চন্দ্রা, বাইপাইল, নবীনগর, আমিন বাজার হয়ে চলাচলের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে ঢাকা-মেট্রোপলিটন ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে যানবাহন নেতৃত্বে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
ট্রাফিক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য প্রয়োজনে সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার উত্তরা ট্রাফিক জোন ০১৭১৩-৩৯৮৪৯৮ অথবা টিআই উত্তরা ট্রাফিক জোন ০১৯১২-০২৫৯৩৯ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মন্ত্রী মহোদয়, পুলিশ, র্যাব কর্মকর্তা, ফায়ার সার্ভিস, সেনাবাহিনী, রেলওয়ায়, হাসপাতাল, বিভিন্ন মন্ত্রনালয়েত সচিব ও কর্মকর্তাগন, গাজিপুর সিটি কর্পোরেশন , গাজিপুর জেলা প্রসাশন এবং স্থানীয় আওয়ামিলীগ নেতা-কর্মীদের আন্তরিকতায় আমরা চির কৃতজ্ঞ। আল্লাহ তাদের খেদমতের উত্তম প্রতিদাব দুনিয়া ও আখেরাতে দান করুন। আমিন।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com