রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৮ অপরাহ্ন

আগুন রহমত! বৃষ্টি আযাব!! আর কত বিভ্রান্তি ছাড়াবেন ওজাহাতি!!!

আগুন রহমত! বৃষ্টি আযাব!! আর কত বিভ্রান্তি ছাড়াবেন ওজাহাতি!!!

তাওফিক আদনান, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম।

এবছর বিশ্ব ইজতেমায় শুরুর প্রথম দুঘন্টা বৃষ্টিস্নাত রহমতের ইস্তেকবাল হয়েছিল ময়দানে। ময়দানের ওজাহাতি ময়লা, নেংড়ামি ও দুগন্ধ ধুয়ে মুছে সত্যকারের দায়ীদের এক পরিস্কার,  পাকসাফ ময়দানে করেছিলেন আল্কাহ পাক।  অন্ধকারচ্ছন্ন আকাশ দায়ীদের দোয়ার দ্বারা পরিস্কার করে তাদের মকবুলিয়ত দিয়েছেন আল্লাহ পাক।

 

সরকারের পক্ষ থেকে ইজতেমা নিয়ে গুজব না ছড়ানোর নির্দেশনা ছিল। কিন্তু ওজাহাতি বিনা পয়সার বাতিলের কামলারা এমন কোন গুজব নেই যা ছড়ায় নি। গুজবই তাদের দ্বীন। মিথ্যাই যেন পুঁজি।  আজ পর্যন্ত তাবলীগ ইস্যুতে যত আন্দোলন তারা করোছে এর ৯৯ভাগই ছিল গুজব ও আজগুবী কথা।

 

বিশ্ব ইজতেমায় এবছর বৃষ্টি নিয়ে তাদের গুজব আর অপপ্রচার ছিল চোখে পড়ার মতো। বৃষ্টিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কত ধরনের অপপ্রচার যে করেছে ওজাহাতিরা তা দেখে ভদ্র সমসজ বিস্মিত।  তাদের অসুস্থ চিন্তা কোথায় গিয়ে দাড়াচ্ছে আল্লাহই ভাল জানেন।

 

আল্লার রাসুল (সা:) দ্বীনকে বৃষ্টির দ্বারা উদাহরণ দিয়েছেন। বৃষ্টি কামনার জন্য আল্লাহ্ তা’লা এস্তেস্কার নামাযের বিধান পর্যন্ত নাযিল করেছেন। আর ওজাহাতীরা বলেন বৃষ্টি নাকি আজাব ?কোনো হাদীস তো দূরের কথা, কোন বুজুর্গও কোন দিন আগুনকে রহমত বলেননি। আগুনে পুড়ে আপনাদের ২০০ জন আহত হলো ৪০ জন পুড়ে হসপিটালে ভর্তি, সেটা আজাব ছিলো না, তাদের কাছে সেটা রহমত ছিলো?আমরাতো সিলিন্ডার বিষ্ফোরনে আহত হওয়াকে আজাব বলিনি। বরং আহত ভাইদের জন্য সমবেদনা জানিয়েছি।কেউ বলতে পারবেন টঙ্গীর বৃষ্টিতে কয়জন আহত হয়েছে?

 

আফসোস! আপনাদের জাহালতের কোন সীমা- পরিসীমা আছে?

 

এর পূর্বেও বিশ্ব ইজতেমায় ১দিনে শেষ করতে হয়েছিলো প্রচন্ড বৃষ্টির কারনে। প্রায় হাটু সমান পানি হয়ে গিয়েছিলো। সিজদা দেয়ার মত জায়গা ছিল না। আমি সে ইজতেমায় ছিলাম জোবায়েরুল হাসান রহঃ প্রথম দিনই মাগরীবের পরে দোয়া করে দিয়েছিলেন। ওটাও কি আজাব ছিলো?

 

তারও পূর্বে তিন চিল্লার সাথীদের জোড়ে প্রচন্ড তুফানে বহু সাথী মারাত্তক আহত হয়েছিলো। এর মধ্যে আমার এক সাথীও ছিলো। ২/৩ জন মারা পর্যন্ত গেলেন। মাথার উপর দিয়ে বড় বড় টিনকে কাগজের মত উড়তে দেখেছি।বেডিং টা পর্যন্ত আনার সুযোগ হয়নি এতোটা দূর্যোগপূর্ন আবহাওয়া ছিলো, ওটাও কি আজাব ছিলো?

 

শহীদ জোনায়েদ জামসেদ রহঃ এর ভাগ্য ভালো। উনি যদি পাকিস্তানি না হয়ে ইন্ডিয়া বা বাংলাদেশের নিজামুদ্দিন অনুসারী হতেন তবে এই ওজাহাতী সমর্থকরা মনে হয় ওনাকে ফেরআউন আর হামানের সাথে তুলনা করতো! ওনারতো লাশও চেনা যায়নি এতোটা পুড়ে গিয়েছিলো। সেটাও কি আজাব ছিলো? এরা নিজেদেরকে আযাব আর রহমতের ফায়সালা দেনে ওয়ালা ভাবতে শুরু করলো নাকি?

 

আফসোস! শত আফসোস!!  আপনাদের জেহালতের জন্য….

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com