শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
এক আল্লাহ জিন্দাবাদ… হাটহাজারী মাদরাসার সামনে পুলিশের সতর্ক অবস্থান : রুহিকে গনধোলাই কেন হাটহাজারী মাদরাসা ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল? হাটহাজারী মাদরাসায় ছাত্রদের বিক্ষোভ ভাঙচুর : কওমীতে নজিরবিহীন ঘটনা ‘তাবলিগের সেই ৪ দিনে যে শান্তি পেয়েছি, জীবনে কখনো তা পাইনি’ তাবলীগের কাজকে বাঁধাগ্রস্থ করতে লাখ লাখ রুপি লেনদেন হয়েছে: মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী দা.বা. (অডিওসহ) নিজামুদ্দীন মারকাজ বিশ্ব আমীরের কাছে বুঝিয়ে দিতে আদালতের নির্দেশ সিরাত থেকে ।। কা’বার চাবি দেওবন্দের বিরোদ্ধে আবারো মাওলানা আব্দুল মালেকের ফতোয়াবাজির ধৃষ্টতা:শতাধিক আলেমের নিন্দা ও প্রতিবাদ একান্ত সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী :উলামায়ে হিন্দ নিজামুদ্দীনের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন
এই চোরগুলোই বলে আমাদের ছাড়া কোন মেহনত চলতে পারে না !!! আল্লামা মাসঊদ

এই চোরগুলোই বলে আমাদের ছাড়া কোন মেহনত চলতে পারে না !!! আল্লামা মাসঊদ

দেশের বর্ষিয়ান আলেমেদ্বীন আল্লামা ফরীদ উদ্দীন  মাসঊদ বলেছেন, প্রশ্নফাঁসে উলামায়ে কেরামের বদ আমলই দায়ী । কওমী অঙ্গনে প্রশ্নফাঁসের ঘটনা উলামায়ে কেরামের সুন্নাতি লেবাসের অবমাননা।  উলামায়ে কেরামের দ্বারা ইদানিং জঘন্যতম কিছু কাজ মিডিয়ায় প্রকাশ হয়ে দেশব্যাপি আলোচিত ও ঘৃনীত হয়েছে। সবাই ছি ছি করছে। এটি একটি আযাব। এসব গোনাহের ফল। তওবা করা দরকার এজাতীয় ঘৃনীত ভয়াবহ গোনাহ থেকে। আল্লাহ যেন পুরো জাতীকে হেফাজত করেন। আলামত খুব একটি ভাল নয়। এসব মারাত্মক গোনাহতো সাধারণ মানুষ থেকে হওয়াও কাম্য নয়। আর উলামায়ে কেরাম নামের কিছু লোক আজ এসবে জড়িয়ে পড়েছে। এদের বিরোদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। তাকওয়া অর্জন ও দাওয়াতের মাধ্যমে এদের গোনাহ ফিরে আনতে হবে ।

 

এই যে প্রশ্নফাঁস, ধর্ষণ, বলাৎকারের মত নিকৃষ্টতম ঘটনা তা, নিঃসন্দেহ দাঁড়ি টুপিওয়ালা মানুষদের সমাজে ছোট করে দিয়েছে। তিনি বলেন, যাদের পায়ের নিচে ফেরেশতারা নূরের গালিচা বিছিয়ে দিয়ে, যাদের নিকট ফেরেশতারা দুআ চায়, যাদেরকে ফেরেশতারা সালাম করে, আজ তারাই সমাজের সবচেয়ে জঘন্যতম গর্হিত কাজে ইদানিং জড়িয়ে পড়ছে। এর থেকে আফসোসের আর কিছুই হয় না।

 

আল্লামা মাসঊদ আরো বলেন, যারা প্রশ্ন ফাঁসের মতো জঘন্য অপকর্ম করে তারাই আবার বলে আমরা ওয়ারাসাতুল আম্বিয়া। ছি…।  এরাই আবার কোন মূখে বলে আমাদের নিয়ন্ত্রণ ছাড়া কোন মেহনত চলতে পারে না। যারা একটি ছোট্ট বোর্ড নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যার্থ তারাই কি না বিশ্বব্যাপি তাবলীগ নিয়ন্ত্রণ করবে!!! এরা আবার আমীরও হতে চায়। লজ্জা নেই। চুরি করার পরেও  এদেরচোহারায় লজ্জার চাপ নেই।  কারন গুনাহ করতে করতে দ্বীল যখন মরে যায় তখন সকল অনুভতি শক্তি লোপ পেয়ে যায়। দুনিয়া ও আখেরাতের কোন ভয়, লজ্জা শরম তাদের মাঝে কাজ করে না। এই চোরগুলোর কারণে এখন সমাজ ও রাষ্টে  মূখ দেখানো যাচ্ছে না। প্রশ্ন ফাঁসকারী এই চোরগুলোকে জুতাপেটা করা দরকার।

 

সম্মিলিত কওমি মাদরাসা সরকারি বোর্ড ‘আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’-এর অধীনে চলমান দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনায় আমাদের বদ আমল ও সীরাতে মুস্তাকিমের পথ থেকে বিচ্যুতিকেই দায়ী করেছেন বেফাকুল মাদারিসিদ্দীনিয়া বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান, শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, শাইখুল হাদীস আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

 

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বাদ মাগরিব রাজধানীর খিলগাঁও ইকরা বাংলাদেশ জামে মসজিদ কমপ্লেক্সে শবগুজারী মজলিসে সাইয়্যিদ মাওলানা আসআদ মাদানী রহ.-এর খলীফা আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এসব কথা বলেন।

 

আমাদের পেয়ারে নবীজী মুহাম্মদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সুন্নত ও সাহাবায়ে কেরামের আদর্শ পূর্ণাঙ্গ অনুসরণ করে আল্লাহ তাআলার দিকে মনোনিবেশ করার আহ্বান জানান আল্লামা মাসঊদ।

 

পবিত্র মাহে রমজানের প্রস্তুতি নেয়ার কথা উল্লেখ করে শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম বলেন, রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস পবিত্র মাহে রমজান এখন দোরগোড়ায়। প্রতিটি মুসলমানের উচিত আল্লাহর কাছে নিজেদের নিবেদন করতে রমজানের আগেই যথাযথ প্রস্তুতি গ্রহণ করা। এমাসে তাকওয়া,অর্জন করে নিজেকে সকল প্রকার গোনাহ থেকে তওবা করতে হবে।

 

তিনি বলেন, রমজান মাসের প্রতিটি সময়ই গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিনই রোজাদারদের দোয়া কবুলের সময়। সেই পবিত্র মাহে রমজান আসছে। এমন মহিমান্বিত একটি মাসের জন্য নিশ্চয়ই আমাদের মানসিক, শারীরিক ও উপযুক্ত রসদ নিয়েই প্রস্তুতি নেয়া উচিত। রমজানের আগেই দুনিয়ার যাবতীয় অকল্যাণ থেকে মুক্ত থেকে আল্লাহর নৈকট্য অর্জনের জন্য প্রস্তুত হওয়া একান্ত জরুরি।

 

মসজিদে উপস্থিত মুসল্লীদেরকে রমজানের শেষ দশকে ইকরা কমপ্লেক্স জামে মসজিদে ইতেকাফ করার আহ্বান জানান তিনি।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com