মঙ্গলবার, ১৬ Jul ২০১৯, ১২:১৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::
যেভাবে চিনবেন মূলধারার তাবলীগী সাথী

যেভাবে চিনবেন মূলধারার তাবলীগী সাথী

জুবায়ের বিন মিজান, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম

নিচের গুণ ও কাকগুলো দেখলে বুঝবেন এরা মূলধারার সাথী।

১। আমরা সবসময় বড়দের মাশওয়ারা মেনে মেহনতের সাথে লেগে থাকার চেষ্টা করি, মাশওয়ারার বাইরে এবং বড়দের এতাআতের বাইরে নব্য কোনো মেহনতকে আমরা তাবলীগের মেহনত হিসেবে বিশ্বাস করিনা…!!

২/আমরা কোনো ব্যাক্তি বিশেষ বা কোনো প্রতিষ্ঠানকে তাবলীগের দলিল মনে করিনা, আমাদের নিকট তাবলীগের দলিল হলো হযরতে সাহাবা(রাঃ)দের জীবনী…!!

৩/আমরা তাবলীগের বিষয়ে আমাদের আলোমী মার্কাজের উসূল এবং আমাদের আকাবিরগনের মালফুজাত মেনে চলি, মেহনতের ময়দানে ওনাদের কদমের অনুসরণ করি, কেননা ওনারা সাহাবাদের জীবনী অনুসরণকারী………….!!

৪/শারঈ মাসায়িলের ক্ষেত্রে আগেতো পাইকারি ভাবে যেকোনো আলিমের কাছে জিজ্ঞাসা করতাম, যেকোনো আলিমকে মেনে চলতাম!
কিন্তু এখন আর পাইকারি ভাবে সব আলিমকে শরীয়তের ক্ষেত্রে মানিনা, কারন বর্তমানে আল্লাহ্ তায়ালা উলামায়ে’সূ এবং উলামায়ে হক্বকে প্রকাশ করে দিয়েছেন!
যেকারনে আমরা কোনো গালিবাজ, মিথ্যাচারী, প্রতারক, ধর্ষণকারী, বলাৎকারকারী, বিনা ওজরে জাকাত ফিতরা ভক্ষণকারী, সন্ত্রাসী, হিংস্র হিংসুক, জঙ্গী, মাদক ব্যাবসায়ী, এবং ধর্মব্যাবসায়ীদেরকে শারঈ মাসায়িলের ক্ষেত্রে পাইকারি ভাবে অন্ধের মতো মানিনা!
আমরা শারঈ মাসায়িলের ক্ষেত্রে একমাত্র উলামায়ে হক্বদেরকে মানি, যারা উল্লেখিত দোষ গুলো থেকে মুক্ত………….!!

৫/আমরা অশ্লীল গালির বদলায় অশ্লীল গালি ফিরিয়ে দেইনা, বরং তাদের জন্য হিদায়াতের দুয়া করি!
কেননা, গালিবাজ মুনাফেক, আর মুনাফেকের জায়গা হবে জাহান্নামের তলদেশে, যেখানে জাহান্নামীদের পুজ রক্ত জমা হয়ে থাকবে………..!!

৬/যেমনিভাবে দ্বীনের স্বার্থে আমরা সম্পর্ক গড়তে পারি, তেমনি দ্বীনের স্বার্থে আমরা সম্পর্ক ছিন্নও করতে পারি, হোক সেটা পিতা পুত্রের সম্পর্ক, ভাই ভাইয়ের সম্পর্ক, আত্মীয়তার সম্পর্ক অথবা বন্ধুত্বের সম্পর্ক………….!!

৭/তাবলীগের মেহনতের প্রতিবন্ধকতায় আমরা কোনো ফতুয়াকে দলিল মনে করিনা, কেননা ফতুয়া ওয়ালাদের কাজ ফতুয়া দেয়া আর দাঈর কাজ মেহনত করতে থাকা!

যেমনঃ দেওবন্দের একটা ফতুয়া হলো মাস্তুরাত জামাত নিষিদ্ধ, অথচ আল্লাহ্ তায়ালা মাস্তুরাতের এই মুবারক মেহনতকে সারা দুনিয়ার জন্য কবুল করেছেন, সবচেয়ে বেশি ফায়দা হয়েছে মাস্তুরাতের মেহনত দ্বারা, লক্ষ লক্ষ ঘরে দ্বীনের পরিবেশ কায়েম হয়েছে এই মাস্তুরাতের মুবারক মেহনতের যরীয়ায়…
ফতুয়া তো মাটিচাপা খেয়ে এখনো ঝুলছে, অথচ কাম সারা দুনিয়ার জন্য মকবুল হয়ে গিয়েছে!
আমাদের আকাবির হযরতজী মাওঃ মুহাঃ ইলিয়াস সাহেব রাহিঃ সহ সবার উপরই ফতুয়া এসেছে, কিন্তু কামের কোনো ক্ষতি হয়নি, কাম আরো আগে বেড়েছে!
সুতরাং ফতুয়া ফতুয়ার জায়গায়, মেহনত মেহনতের জায়গায়, এটাই মেহনতের উসূল…………!!

৮/কাম চলবে জান ও মালের কুরবানি দ্বারা, যার যতটুকু যোগ্যতা আছে সে তার যোগ্যতা অনুপাতে দ্বীনের জন্য কুরবানি দেবে, এবং তার কুরবানি দিনদিন বাড়াতে থাকবে!
যতোই কঠিন হালাত আসুক দাঈ সেখানে নিজের কুরবানিকে পেশ করবে, হালাতের শেকায়েত করবেনা বরং হালাতের মোকাবেলায় কুরবানির সাথে আ’মাল পেশ করবে…
আমরা মেহনতের ময়দানে এটাকে আঁকড়ে ধরার চেষ্টা করি ইনশাআল্লাহ…………..!!

৯/ইজতেমার খুরুজ, ৫দিনের জোড়ের খুরুজ, জেলা ইজতেমার খুরুজ, জৈষ্ঠ আষাঢ় মাসের খুরুজ, এস এস সি ছাত্র জামাতের খুরুজ, রমজান মাসের খুরুজ সহ যাবতীয় খুরুজ গুলোই আমাদের মেহনতের উদ্দেশ্য!
কেননা, খুরুজের ভিতরেই সমাধান…
এজন্য আমাদের একমাত্র টার্গেট খুরুজ ফি সাবিলিল্লাহ্!

“একটা মানুষ যখন আল্লাহর রাস্তায় কদম ওঠায় আল্লাহ্ তায়ালা তার পেছনের যাবতীয় গুনাহ মাফ করে দেন, এবং তার দিলের অন্ধকার দূর করে দেন”
(হযরতজী মাওঃ মুহাঃ ইলিয়াস সাহেব রাহিঃ)

১০/আমাদের মূল পূজি হলো মসজিদ আবাদী মেহনত, ঘরে মসজিদে মাশওয়ারা, ঘরে এবং মসজিদে তা’লীম, মহল্লায় রোজয়ানা কমপক্ষে আড়াই ঘন্টা-আটঘন্টা দাওয়াতের মেহনত, উমুমী গাস্ত, অপর মহল্লায় ২য় গাস্ত, মাসে কমপক্ষে তিনদিন/সাতদিন/১০দিনের জামাত, মাস্তুরাত সহ সময় লাগানো, সবগুজারী করা, আহলিয়া এবং মাহরাম মেয়েদেরকে সাপ্তাহিক তা’লীমের পয়েন্টে নিয়ে যাওয়া, হার সাল চারমাস, অথবা কমপক্ষে ১চিল্লা নেসাব ঠিক রাখা, নিজামুদ্দীনে সময় লাগানো, মাস্তুরাত সহ দেশ বিদেশে লম্বা লম্বা সময় লাগানো, এবং অবশ্যই তা আমীরের এতাআতে এবং মাশওয়ারা সাপেক্ষে, নিজের মনমতো নয়…
এগুলোই আমাদের পূজি, এই পূজির উপরে সারা দুনিয়াতে কাম জিন্দা হয়েছে, এবং কিয়ামত পর্যন্ত এই পূজির উপরই কাম চলতে থাকবে ইনশাআল্লাহ………..!!
♦দলিলঃ সাহাদের জীবনী!
♦মেহনতঃ জান মালের কুরবানি সহ খুরুজ!
♦বুনিয়াদঃ আমীরের এতাআত এবং মাশওয়ারার পাবন্দী……………..!!

আল্লাহ্ তায়ালা এই উম্মতের সকল ব্যাক্তিকে মূলধারার তাবলীগী মেহনতে কবুল করুন!

Facebook Comment





© All rights reserved © 2019 Tablignewsbd.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com
error: Content is protected !!