মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন

গুজব রটানোর দায়ে মুন্সিগঞ্জের সেই ওজাহাতি মুফতী র‌্যাবের হাতে আটক

গুজব রটানোর দায়ে মুন্সিগঞ্জের সেই ওজাহাতি মুফতী র‌্যাবের হাতে আটক

ষ্টাফ রিপোর্টার, তাবলীগ নিউজ বিডি ডটকম:

মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানাধীন দারুল উলুম খিদিরপাড়া মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক ও হেফাজত নেতা মুফতী ছানাউল্লাহ চাঁদপুরীকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। এ সময় তার ব্যবহৃত ০২ টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। ফেসবুকে গুজব রটিয়ে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে ২৭ জুলাই মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করেছে র‌্যাব-১১।

রোববার দুপুরে আদমজীনগর র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল কাজী শমসের উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য নিশ্চিত করা হয়।

 

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গ্রেফতারকৃত’কে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় মুফতী ছানাউল্লাহ চাঁদপুরীর বাড়ী চাঁদপুর জেলার মতলব থানাধীন বাকরা এলাকায়। সে গত ০১ বছর যাবৎ মু›সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানাধীন দারুল উলুম খিদিরপাড়া মাদ্রাসায় প্রধান শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতা করে আসছে।

দীর্ঘদিন যাবৎ সে মোবাইলসহ নানা রকমের ইলেক্ট্রিক ডিভাইস ব্যবহার করে বিভ্রান্তিমূলক বিভিন্ন ছবি ও তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচারসহ ধর্মীয় উস্কানিমূলক ও বিদ্বেষপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে গুজব রটিয়ে ধর্মীয় ও সামাজিক সম্প্রীতি নষ্টের চক্রান্ত করে আসছে।

গত ২৬ জুলাই ২০১৯ তার ব্যবহৃত “”মুফতী ছানাউল্লাহ চাঁদপুরী’’ নামের ফেসবুক পেইজ থেকে বাহ্মণবাড়িয়া শহরের মেড্ডা এলাকায় একটি মসজিদে সম্প্রতি আগুন লাগার ঘটনায় অমুসলিমরা জড়িত রয়েছে মর্মে গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে আইনশৃংখলার অবনতি ঘটানোর জন্য উস্কানিমূলক তথ্য প্রচার করেছে যাতে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। এছাড়াও গত ১৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে তার ফেসবুক আইডি থেকে ভারতে গরুর গোশত থাকার সন্দেহে মাদ্রাসায় আগুন দিয়েছে হিন্দু সন্ত্রাসীরা শীর্ষক শিরোনামে একটি “”স্ট্যাটাস’’ দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি ও ধর্মীয় বিদ্বেষের সৃষ্টির অপচেষ্টা করে। এভাবে সে দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন ধরণের ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রচার করে জনমনে আতংক ও সাম্প্রদায়িত সম্প্রীতি বিনষ্ট করে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতি ঘটানোর অপতৎপরতা চালিয়ে আসছে। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

উল্লেখ্য যেন, তার ফেসবুক আইডি ঘুরে দেখা যায় দেশে ধর্মীয় সংঘাত তৈরির লক্ষ্যে সেই নিয়মিত তাবলীগ বিরোধী অপপ্রচার ও নানান ব্যক্তির উপর মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে উত্তেজনা তৈরি করত। বিভিন্ন ওজাহাতি সমাবেশ নিয়মিত লাইভ দিত। সর্সবশেষে শাহ আহমদ শফির মুন্সিগঞ্জের সম্মমেলন লাইভ ও ব্যাপক প্রচার এবং বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে মুফতী চাদপুরী।

 

সূত্রঃ সময় নিউজ।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com