শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫৬ অপরাহ্ন

ওলীপুরীকে নিয়ে শায়খে কাতিয়ার সাহেবজাদার সর্তকবার্তা: স্যোসাল মিডিয়ায় তোলপাড়!

ওলীপুরীকে নিয়ে শায়খে কাতিয়ার সাহেবজাদার সর্তকবার্তা: স্যোসাল মিডিয়ায় তোলপাড়!

লন্ডন প্রতিনিধি, তাবলীগ নিউজ বিডডিডটকম।
লন্ডনে অবস্থানরত বক্তা মাওলানা নুরুল ইসলাম ওলীপুরীকে নিয়ে মাওলানা উবায়দুল্লাহ ইবনে শায়কে কাতিয়ার একটি অডিও বার্তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য যে বৃহত্তর সিলেটের খান্দানী,শরাফতী ও বুজুর্গ আলেম হিসাবে উবায়দুল্লাহ সাহেবের পরিবার সুবিখ্যাত। তার পিতা সিলেটের আপমার মুসলমানের পরমশ্রদ্ধেয় পীর, হাজার হাজার আলেমের উস্তাদ ও শায়েখ মাওলানা আমিন উদ্দীন শায়খে কাতিয়া। যিনি “কাতিয়ার সাব” নামে মশহুর ছিলেন। একজন কুতুব হিসাবে সবাই জানতেন। শায়খুল ইসলাম সায়্যিদ হুসাইন আহমদ মাদানী রহ এর শাগরেদে খাছ ছিলেন। সুবিখ্যাত দ্বীনী প্রতিষ্টান জামেয়া কাতিয়া সহ অসংখ্য মাদরাসার প্রতিষ্টাতা তিনি।

লন্ডনে বসবাসকারী এই আলেম নিজেকে ক্বারী উবায়দুল্লাহ আমীনী ইবনে শায়খে কাতিয়া নামে পরিচয় দিয়ে একটি ছোট অডিও বার্তা প্রেরণ করার পর এনিয়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়। তিনি তার অডিও বার্তায় বিশ্ব আমীর সাদ কান্ধালভীর বিরোধীতা করে ওলীপুরীর লাগামহীন কথাবার্তায় গুরুত্ব না দিতে বলেন।

কেউ কেউ তার ভিডিও আক্রমনাত্বক এবং এরকম না বলা উচিত ছিল বলছেেন। তবে ওলীপুরী ভক্তরা মাওলানা উবাদুল্লাহকে বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবী করে গালাগালি করতে দেখা যায়।

তবে অন্যরা বলছেন, মাওলানা উবায়দুল্লাহ যে উঁচা আলেম পরিবারের ব্যক্তিত্ব, সে হিসাবে ওলীপুরীর একের পর এক মিথ্যাচার ও বিশ্ব আমীরকে নিয়ে তাহকীকবিহিন লাগামহীন, উগ্র, আক্রমনাত্তক, গালাগালি ও অপব্যখ্যা করে যাচ্ছেন, সে তুলনায় উনার কথাগুলো সর্তক হিসাবে বলার দরকার ছিল।

মাওলানা উবায়দুল্লাহ বিন শায়খে কাতিয়া তার অডিও বার্তায় বলেন, “ভাই আমি ক্বারী উবায়দুল্লাহ আমীনী, ইবনে শায়খে কাতিয়া। আমাদের এই গ্রুপের ভিতর যে ভাইরা আছেন। তাদের আমি অনুরোধ করব।

কোথায় মোতাহির আলী, কোথায় জুতার তালী। হযরতজী মাওলানা সাদ সাহেব হাফিজাহুল্লাহ পুরো বিশ্বের একজন আমীর, এমন এক খান্দানের ছেলে তার সাথে আপনারা কোথাকার হবিগঞ্জের ওলীপুর নামক এক গ্রামের মানুষ, যার একটি বয়ানে একটি হাদীস সুন্দর করে বলতে দেখা যায়। তার সাথে মিলান। তার জীবনের শুরুটি হল একটি আলীয়া মাদরাসা পড়ানো দিয়ে। উনার ইতিহাস জানার চেষ্টা করবেন। কত কম এলমি মানুষ।এর পর বক্তা হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছেন।এখন তার মতো অনেক বক্তা বাংলাদেশে আছেন। এমনকী তার চেয়ে বেশী বক্ত আছে গিয়াসউদ্দিন তাহেরীর।বেদাতিদের জলসায়ও বহু মানুষ হয়।

এজন্য আল্লাহর ওয়াস্তে আপনাদের পায়ে ধরে বলছি। এত বড় এক আলমী বুজুর্গ হযরতজী আল্লামা সাদ সাহেব সম্পকে ওলীপুরীর মতো খালের বিড়ালে কথা বললে, উনার কিছু যায় আসে না।

বরং ওলীপুরী আমাদের জন্য একটা রহমত।সাদ সাহেবের যত বিরোধিতা তারা করছেন,তত বেশি সাদ সাহেবের কামালতি, কারামতি দুনিয়ার মধ্যে জাহির হচ্ছে, প্রকাশিত হচ্ছে। ইতা কিছুদিন গেউ গেউ গেউ করে ওটমেটিক বন্ধ হয়ে যাবেন। আমার কথার সত্যতা আপনারা ইনশাআল্লাহ পাবেন। একটু সবর করুন।আমি মনে করি না ওলীপুরীর মতো মানুষকে এত গুরুত্ব আমাদের দেয়ার দরকার আছে। ইতা কত ওলীপুরী ডাসবিনে পড়ে আছে।

আসসালামু আলাইকুম

Facebook Comment





© All rights reserved © 2019 Tablignewsbd.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com
error: Content is protected !!