সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:২৬ পূর্বাহ্ন

মাওলানা সাদ কান্ধলবীর স্পষ্ট রুজুনামা (ভিডিওসহ)

মাওলানা সাদ কান্ধলবীর স্পষ্ট রুজুনামা (ভিডিওসহ)

ইলম হলো আমলের চাবিকাঠি। ইলমই মূলত উন্মতের পথনির্দেশক। নিজের সমস্ত কথা ও কাজকে ইলম ও আলেমদের নিকট সমর্পণ করো।উলামারা হচ্ছেন অনুসরণীয়। উলামারা নেতা ও ইমাম। আর উম্মাত হচ্ছেন তাদের মুকতাদি তথা অনুসরণকারী। উলামারা একারণে অনুসরণীয় যে, মূলত ইলম হচ্ছে কায়েদ তথা অনুসরণীয়। আর সমস্ত আমল, কাজকর্ম ও বলা ইলমের অনুসারী। একারণে আমরা আমাদের প্রতিটি পদক্ষেপেই অর্থাৎ আমাদের কথা, কাজ ও আমলে উলামায়ে কেরাম ও তাদের প্রদর্শিত পথের অনুসারী। এটিই হচ্ছে মূলকথা। একারণে ইলম থেকে সরে যাওয়া মানে মূর্খতা। তাই আমরা প্রত্যেকটি আমল, কথা ও কাজে লক্ষ্য করি উলামায়ে কেরাম কী বলেন! সাহাবায়ে কেরাম রা.ও খোলাফায়ে রাশেদীন এ বিষয়ে সবচেয়ে বেশী ভীতসন্ত্রস্ত থাকতেন। তারা আমলের চেয়ে আমল কবুলের চিন্তা করতেন বেশী। যে আমার এ আমল কী ইলম অনুযায়ী হলো না তার বিপরীত!

আমি এসব কথা এ জন্য বললাম যে, কখনো বয়ানের মাঝে এমন কথা চলে এসেছে, যা যেকোনো সাধারণ কথাতেই আম্বিয়া আলাইহিসালামের সম্মান ও মর্যাদার খেলাফ হয়ে যায়। যা থেকে আমি পানাহ চাচ্ছি। আমার বিভিন্ন বয়ানে যেমন মূসা আ.সম্পৃক্ত ঘটনা বিশেষকরে তার নিজস্ব ইবাদতে মশগুল হয়ে যাবার ব্যাপারে বয়ান হয়েছে। কোন এমন কথা যাতে আম্বিয়া আলাইহিসালামের সম্মান এবং আম্বিয়া আলাইহিস সালামের কাজের মতের পরিপন্থী হওয়ার ভুল ও ভুলের সম্ভাবনাও থাকে তাহলে তা থেকে সর্বদাই রুজু করতে হবে। কেননা, না হলে এ কথার বিশ্বাসে এদিকেই মন চলে যায় যে, নাউজুবিল্লাহ মূসা আ. তার কওম থেকে পৃথক হওয়ার কারণেই গোমরাহি এসেছে। নাউজুবিল্লাহ! এমন কথা ভবিষ্যতে আর কখনোই বলা হবে না। আর না এ কথাকে শক্তিশালী করার জন্য কোনও চেষ্টাও করা হবে। বরং এসব জিনিস থেকে পানাহ ও পরিত্রাণের দোআ করা চাই। এরমধ্যে তো কোনও সন্দেহ নেই যে আম্বিয়া আলাইহিস সালামদের দুটো যিম্মাদরী ছিলো : দাওয়াত ও ইবাদত। আর এ দুটো বিষয়েই উনারা পুরো চেষ্টা করে গেছেন। এ ব্যাপারে সন্দেহও আনা যাবেনা যে,আল্লাহ না করুক কোনও এক আমলের মেহনতে তাদের অন্য কোনও আমল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এটা সম্ভব নয়। এ কারণেই, আমার কোন কোন বয়ানে এমন কথা এসেছে আমি তার থেকে ‘রুজু’ করছি এবং এসব থেকে নিজেকে পরহেজ করছি।
সাহাবায়ে কেরাম রা. ফতওয়া দেয়ার ক্ষেত্রে এবং কোনও কথার জবাবে কতোইনা সতর্কতা অবলম্বন করতেন।

দ্বিতীয় কথা হলো: এসব কথাকে সত্যায়িত করা বা সত্যায়নের কোন চেষ্টা করাও ভুল। যা ভুল তা ভুলই। এ জন্য এসব থেকে বিশ্বাস ও বক্তব্যে সবদিক থেকেই রুজু করা চাই। বরং আমি বলবো যে, আল্লাহ তায়ালা হক্কানী উলামায়ে কেরামদের উত্তম প্রতিদান দান করুন যে, তারা এমন ভুল বিষয়াবলীর প্রতি দৃষ্টিপাত করেন। এ কারণেই উলামায়ে কেরামদের এমন নির্দেশনাকে নিজের প্রতি ইহসান মনে করা। তাদেরকে নিজের হিতাকাঙ্ক্ষী মনে করা। নিজের কথা সাব্যস্ততায় তাদেরকে বিরোধী মনে করা গোঁড়ামি। আর এটা তো স্বতঃসিদ্ধ কথা যে, ভুল ধরিয়ে দেনেওয়ালাকে নিজের মুহসীন জ্ঞান করো। বরং সাহাবায়ে কেরাম রা.তো এমন মানুষদের তৈরী করতেন।

মুয়াবিয়া রা. আনহু চার জুমায় এ বয়ান করছেন যে, মাল আমাদের যে চাইবে তাকে দেয়া হবে অন্যথায় দেয়া হবে না। চার জুমা অতিবাহিত হয়ে গেছে কারোই এই ভুল কথা প্রত্যাখ্যান করার হিম্মত হয়নি। চতুর্থ জুমায় এক ব্যক্তি দাঁড়িয়ে গেলেন এবং বললেন, হযরত আপনি ভুল বলেছেন বরং ‘সম্পদ আল্লাহ এবং আল্লাহর রাসূলের’। তার হুকুম ও নির্দেশিত পন্থা অনুযায়ীই তা খরচ করা হবে। লোকেরা বললো, এই ব্যক্তির সময় এসে গেছে। কেন সে আমীরের সামনে এভাবে বললো! কিন্তু সে ভেতরে যেতেই দেখলো মুয়াবিয়া রা. বলছেন, স্বাগতম ‘আহইয়ান আহইয়াহুল্লাহ’ অর্থাৎ সে আমাকে নতুন জীবন দিয়েছে, আল্লাহ তাকে উত্তম জীবন দান করুন। আমিতো মরতে যাচ্ছিলাম, সে আমাকে জীবন দিয়েছে।

এভাবেই তারা নিজেদের ভুল সংশোধনকারী তৈরী করতেন। জ্বী! চার জুমা বয়ান করে এমন লোক তৈরী করেছেন। যে হ্যাঁ! শেষতক কেউ এ কথার বিরোধিতা করবে, কেউ ভুল ধরবে। যেন জানা হয়, আমাদের ভুল সংশোধনকারী কেউ আছেন।

একারণেই আহলে হক উলামায়ে কেরামের এ সংশোধনকে ইহসান মনে করবে। আল্লাহ তায়ালা আহলে হক উলামায়ে কেরামদের জাযা ও খায়ের দান করুন। এভাবেই তারা সবমসময় এসব জায়গায় বিশেষ পথনির্দেশ করবে যেখানে আম্বিয়া আলাইহিস সালমের মর্যাদা, সম্মান ও তাদের কাজের ব্যাপারে সামান্য পরিমাণ সন্দেহ জাগে। এসব ব্যাপারে ধরিয়ে দিবে। এমনসব জিনিস থেকে সবসময়ই বেঁচে থাকা চাই।

দেশবিদেশের আলেম উলামাগণ হযরত সাদ কান্ধলবীর কাছে কিছু বিষয়ে আপত্তি উপস্থাপন করলে এবং দারুল উলূম দেওবন্দের ওয়াজাহাত প্রদর্শন করলে তিনি এ রুজুনামা পেশ করেন।


২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ সালে ডেইলি মারকাযডটকমে প্রচারিত ভিডিও থেকে সরাসরি অনূদীত


গ্রন্থনা : কাউসার মাহমুদ

সম্পাদনা : মাসউদুল কাদির

সুত্র : পাথেয়24


সরাসরি ভিডিও লিঙ্কটি দেয়া হলো-

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com