শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৮:৪০ অপরাহ্ন

রমজান হোক ভালবাসার পাঠশালা

রমজান হোক ভালবাসার পাঠশালা

 সৈয়দ আনোয়ারআবদুল্লাহ

ইসলামে সাম্য-মৈত্রীর, প্রেম ভালবাসার নান্দনিক দর্শন রয়েছে, তা সিয়াম সাধনার মাধ্যমেই মূলত এর বাস্তবায়ন হয়ে থাকে। পবিত্র রমজান যেমন বান্দার প্রতি মহান আল্লাহর রহমত বা দয়াকে আকর্ষণ করে, ঠিক তেমনিভাবে এক বান্দার প্রতি অপর বান্দার, এক মানুষের প্রতি অপর মানুষের অন্তরে মমত্ব, সহানুভূতি, দয়া, ভালোবাসার উপলক্ষ সৃষ্টি করে।

ইসলামে প্রেম ও ভালবাসার গুরুত্ব অপরিসীম। প্রথমত বান্দা তার রবকে ভালবাসবে। রমজানের রোজারা মাধ্যমে সেই ভালবাসার অনন্য নজির স্থাপন করে। সেহরীতে বাহারী খাবার মন চায়, কিন্তু আযান পড়ার সাথে সাথে আর বান্দা মূখে কিছুই দেয় না রবের ভালবাসায়। ইফতারের মজাদার খাবার সামনে কিন্তু সময়ের আগে মুখে না দিয়ে ভালবাসার নজরানা পেশ করে বান্দা।

قُلۡ اِنۡ کُنۡتُمۡ تُحِبُّوۡنَ اللّٰہَ فَاتَّبِعُوۡنِیۡ یُحۡبِبۡکُمُ اللّٰہُ وَ یَغۡفِرۡ لَکُمۡ ذُنُوۡبَکُمۡ ؕ وَ اللّٰہُ غَفُوۡرٌ رَّحِیۡمٌ ﴿۳۱﴾

বল, ‘যদি তোমরা আল্লাহকে ভালবাস, তাহলে আমার অনুসরণ কর, আল্লাহ তোমাদেরকে ভালবাসবেন এবং তোমাদের পাপসমূহ ক্ষমা করে দেবেন। আর আল্লাহ অত্যন্ত ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু’। সুরা: আলে ইমরান ৩১

দ্বীতিয় আল্লাহকে পেতে রাসুলের ভালাবাসা। আমীরকে ভালবাসা। আল্লাহর প্রিয়দেরকে ভালবাসা। তারপর কালেমার খাতিরে সকল মুসলমানকে কালেমার খাতিরে ভালবাসা। আল্লাহর সকল বান্দাকে  মহব্বত করা। আল্লাহর সকল সৃষ্টিকে ভালবাসা। এটি ইসলামের মহান শিক্ষা।

এমনকি হাদীস শরীফে এই মহব্বতের জন্য দুআও শিক্ষা দেওয়া হয়েছে, সুনানে তিরমিযীর একটি বর্ণনায় এসেছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দুআয় বলতেন, اللَّهُمَّ ارْزُقْنِي حُبَّكَ وَحُبَّ مَنْ يَنْفَعُنِي حُبُّهُ عِنْدَكَ (হে আল্লাহ! আমাকে আপনার মহব্বত দান করুন এবং যার মহব্বত আপনার কাছে আমার জন্য উপকারী হয়, তার মহব্বতও দান করুন।)-হাদীস নং : ৩৪৯১

আরেক বর্ণনায় আছে, আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বিশেষ এক মুহূর্তে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বললেন- আপনি (আমার কাছে কিছু) প্রার্থনা করুন। তখন তিনি প্রার্থনা করলেন এভাবে- اللَّهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ فِعْلَ الخَيْرَاتِ، وَتَرْكَ المُنْكَرَاتِ، وَحُبَّ المَسَاكِينِ، وَأَنْ تَغْفِرَ لِي وَتَرْحَمَنِي، وَإِذَا أَرَدْتَ فِتْنَةً فِي قَوْمٍ فَتَوَفَّنِي غَيْرَ مَفْتُونٍ، وَأَسْأَلُكَ حُبَّكَ وَحُبَّ مَنْ يُحِبُّكَ، وَحُبَّ عَمَلٍ يُقَرِّبُ إِلَى حُبِّك (হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে ভালো কাজসমূহ করার এবং মন্দ কাজসমূহ ছাড়ার তাওফীক চাই। তাওফীক চাই অভাবীদের ভালোবাসার। আর আমাকে ক্ষমা করুন ও আমার উপর রহম করুন। আর যখন কোনো জাতিকে বিপদগ্রস্ত করার ইচ্ছা করবেন তখন আমাকে তুলে নিবেন বিপদগ্রস্ত হওয়ার আগেই। আমি আপনার কাছে চাই আপনার ভালোবাসা এবং ঐ ব্যক্তির ভালোবাসা, যে আপনাকে ভালোবাসে। আর ঐ কাজের প্রতিও ভালোবাসা চাই, যা আপনার ভালোবাসার নিকটবর্তী করে।)-সুনানে তিরমিযী, হাদীস নং : ৩২৩৫

“এক মুসলমান অপর মুসলমানের ভাই। সে তার ভাইয়ের প্রতি অবিচার করতে পারে না। তাকে হেয় প্রতিপন্ন করতে পারে না। তাকে অপদস্থ করতে পারে না।” বাক্যটি বলে তিনবার নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার নিজ বুকের দিকে ইশারা করলেন। (তারপর বললেন,) কোনো লোকের অপদার্থ হওয়ার জন্য এটুকুই যথেষ্ট, সে তার মুসলমান ভাইকে অবমূল্যায়ন করে। এক মুসলমানের জন্য অপর মুসলমানের জীবন, সম্পদ ও সম্মান নষ্ট করা হারাম। (সহিহ মুসলিম)

রমজান এই ভ্রাতৃত্ববন্ধনের শিক্ষা দেয়। রমজান মুসলমানকে কালেমার খাতিরে বড় মনে করতে বলে। সংযম সাধনার এ মাসে ক্ষুধা ও পিপাসার প্রকৃত অনুভূতির মাধ্যমে বিত্তবান-সচ্ছল রোজাদারগণ, দরিদ্র ও অভাবী মানুষের না খেয়ে থাকার কষ্ট বুঝতে সক্ষম হয়। এ উপলদ্ধির জন্যই বিত্তশালী ব্যক্তি সহানুভূতি ও সহমর্মিতা নিয়ে অন্যের পাশে দাঁড়ানোর স্বতঃস্ফুর্ত প্রেরণা বোধ করেন। গরীব অসহায় মানুষের প্রতি ভালবাসার বার্তা নিয়ে আসে সিয়াম সাধনা। মানুষে মানুষে ভালবাসার মহান নজির স্থাপন করে রমজানের সিয়াম সাধনা

কারো প্রতি কারো ভালবাসা আছে কি না, অল্প আছে কি বেশী আছে, তা জানার একমাত্র মাপকাঠি হল, অবস্থা ও পারস্পরিক ব্যবহার দেখে অনুমান করা অথবা ভালবাসার চিহ্ন ও লক্ষণাদি দেখে জেনে নেয়া। যারা আল্লাহ্‌কে ভালবাসার দাবীদার এবং আল্লাহ্‌র ভালবাসা পাওয়ার আকাঙ্খি,আল্লাহ্ তা’আলা স্বীয় ভালবাসার মাপকাঠি তাদের বলে দিয়েছেন। অর্থাৎ জগতে যদি কেউ আল্লাহ্‌র ভালবাসার দাবী করে, তবে মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লামকে অনুসরণের কষ্টিপাথরে তা যাচাই করে দেখা অত্যাবশ্যকীয়। এতে আসল ও মেকী ধরা পড়বে।

যার দাবী যতটুকু সত্য হবে, সে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণে ততটুকু যত্নবান হবে এবং তার শিক্ষার আলোকে পথের মশালরূপে গ্রহণ করবে। পক্ষান্তরে যার দাবী দুর্বল হবে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণে তার দুর্বলতা সেই পরিমানে পরিলক্ষিত হবে। ভালবাসা অনুসারে মানুষের হাশরও হবে। রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম গোশত রান্না করে ইহুদী প্রতিবেশির ঘরে পাঠাতেন। এটি নববী ভালবাসার নমুনা। মানবপ্রেমের উৎকৃষ্ট উদাহরন। নবীর অনুসারীগন রমজানে রাসুলের সেই শিক্ষাকেই বিলিয়ে দেন সমাজ জীবনে পারস্পরিক ভালবাসার মাধ্যমে।

হযরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, এক লোক রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞেস করলো, হে আল্লাহ্‌র রাসূল! কিয়ামত কখন হবে? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তুমি এর জন্য কি তৈরী করেছ? লোকটি বলল, আমি এর জন্য তেমন সালাত, সাওম ও সাদকা করতে পারিনি, তবে আমি আল্লাহ্‌ ও তাঁর রাসূলকে ভালবাসি। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, “তুমি তার সাথেই থাকবে যাকে তুমি ভালবাস”। [বুখারী: ৬১৭১] এজন্য রমজানে আহলুল্লাদের সোহবতে যাওয়া। অনেকে আল্লাহওয়ালাদের ভালবাসা পেতে রমজানে তাদের সান্নিধ্যে ইতেকাফ করে থাকেন। রমজানে উলামায়ে আখেরাত যারা তাদের ভালবাসা লাভ করা, তাদের কথা মতো আমল করা, তাদের লেখা পড়া। এতে তাদের সাথে রুহানী প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হবে।

আর মনে রাখতে হবে এই হাদীস- مَنْ أَحَبَّ لِلَّهِ، وَأَبْغَضَ لِلَّهِ، وَأَعْطَى لِلَّهِ، وَمَنَعَ لِلَّهِ فَقَدِ اسْتَكْمَلَ الْإِيمَانَ যে ব্যক্তি আল্লাহর জন্য কাউকে ভালোবাসে, আল্লাহর জন্য কারো প্রতি বিদ্বিষ্ট হয়, আল্লাহর জন্য কাউকে কিছু দেয়, আল্লাহর জন্যই দেওয়া থেকে বিরত থাকে- সে ঈমানকে পূর্ণ করল।-সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং : ৪৬৭১

আমরা যাদেরকেই ভালবাসবো। ভালবেসে তাদের প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করবো, তা জেন আল্লাহর জন্য হয়। অপর হাদীসে কুদসিতে আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, যারা আমার জন্য কাউকে ভালবাসবে আমার উপর ওয়াজিব হয়ে যায় থাকে ভালবাসা।

এজন্য পবিত্র রমজানুল করিমে আমরা যেন মানুষকে আল্লাহ ও আল্লাহর রাসুলের খাতিরে ভালবাসি। মানুষের জন্য সহমর্মিতা দেখাই। মানুষের পাশে ভালবাসা নিয়ে দাড়াই। রমজান থেকে মানুষের প্রতি সারা বছর যেন ভালবাসার পাঠ আমরা গ্রহন করতে পারি। পারস্পরিক হিংসা বিদ্বেষ পরিহার করে রমজানের সহমর্মিতা নিয়ে ভালবাসা দিয়ে প্রেমময় পৃথিবী সাজাই। আল্লাহ আমাদের তাওফিক দান করুণ। আমিন

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com