শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন

বেফাকে ইজতেমা নিয়ে দিনভর নাটকীয়তা : দেখা করেননি মাওলানা যুবায়েররা

বেফাকে ইজতেমা নিয়ে দিনভর নাটকীয়তা : দেখা করেননি মাওলানা যুবায়েররা

নিজেস্ব প্রতিনিধি, তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম |

বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের মজলিসে খাসের বৈঠকে ছিল আসন্ন বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে গতকাল বুধবার । আসন্ন ইজতেমায় মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষকদের অংশগ্রহণ নিয়ে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েন বেফাক নেতারা। বেফাকের প্রশাসনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার ফাঁকে ইজতেমার বিষয়টি উঠলে আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় যাওয়া না যাওয়া নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেন নি তারা।

 

এদিকে আজ বেফাক অফিসে মজলিসে খাস-এর বৈঠকের পূর্বে কাকরাইলের মাওলানা জুবায়ের ও মুরুব্বীদের সাথে বেফাক ও হেফাজত নেতাদের একটি বিশেষ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও দিন ভর দেখা করা না করা নিয়ে নানান নাটকীয়তার পর শেষ পর্যন্ত বেফাক অফিসে যাননি মাওলানা যুবায়ের।

 

বিভিন্ন সূত্রে জানাযায়, তাবলীগের দুই পক্ষের বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে সমঝোতার পর তৃতীয়পক্ষ থেকে আলাদাভাবে কাজ শুরু করেন মাওলানা  জুবায়ের।  বিষয়টি নিয়ে বেফাক নেতারা চরম অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। তারা নতুন করে তাবলীগ বিষয়ে আর নাক  গলাতে চান নি। অপরদিকে কাকরাইলে গিয়ে বৈঠক করাকেও তারা সম্মানজনক মনে করেন নি। তখন বেফাক নেতারা তাদের অফিসে আসতে মাওলানা জুবায়েরের ও তার সঙ্গীদের ফোন দেন। তারা সময় দিলেও শেষ পর্যন্ত সারাদিন নানান নাটকীয়তার পর তারা বেফাক অফিসে রহস্যজনক কারণে আসেন নি। এনিয়ে আলেমরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন বলে জানাযায়।

 

তারা বলেন, যেভাবে  ইজতেমায়  ছাত্র-শিক্ষকদের অংশগ্রহণ ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। বিশেষত ছাত্রদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে আমরা চিন্তিত। বিষয়টি কাকরাইলের মুরুব্বীদের সাথে পরিস্কার হওয়া উচিত ছিল।

 

তবে বৈঠকে তাবলিগ বা ইজতেমা ইস্যুতে সুনির্দিষ্ট কোনো  সিদ্ধান্ত পৌছতে পারেন নি বেফাকের অজাহাতি নেতারা। বেফাকের বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সূত্র তাবলীগ নিউজ বিডিডটকমকে এসব কথা বলেন। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আল্লামা আশরাফ আলী।

 

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা আবদুল হামিদ, মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, হাফেজ মাওলানা মুসলেহুদ্দীন রাজু, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, মুফতি নুরুল আমিন, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা মুনির আহমদ প্রমুখ।

 

সূত্র আরও জানান, আসন্ন ইজতেমায় উলামায়ে কেরাম,  মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষক ও সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে সেসব ঝুঁকি ও উদ্বেগ কাজ করছে তা প্রশাসনের কাছে তুলে ধরতে আগামীকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বৈঠকে বসবেন আলেমরা।

 

অন্যদিকে গতকাল গাজীপুরের স্থানীয় প্রশাসন, আইন-শৃংখলা বাহিনী ও জন প্রতিনিধিদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকেও মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অংশ গ্রহণ করলে ইজতেমাট নিরাপত্তার প্রশ্ন আসে। তখন সরকার ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা সব ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে এখন থেকে তৎপরতা শুরু করেছে বলে জানায় স্থানীয় প্রশাসন ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা।

 

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com