রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন

বিশ্ব ইজতেমার নিরাপত্তার স্বার্থে ২০ তারিখ পর্যন্ত ‘বাবুস সালাম মাদরাসা’ বন্ধ রাখতে সরকারী নির্দেশ

বিশ্ব ইজতেমার নিরাপত্তার স্বার্থে ২০ তারিখ পর্যন্ত ‘বাবুস সালাম মাদরাসা’ বন্ধ রাখতে সরকারী নির্দেশ

তাবলীগ বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল বাবুস সালাম সংলগ্ন চত্বর

নিজস্ব প্রতিনিধি; তাবলীগ নিউজ বিডিডটকম

৫৪তম বিশ্ব ইজতেমা নির্বিঘ্নে ও নিরাপদভাবে সম্পন্ন করতে ধর্ম মন্ত্রণালয় আজ এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমান বন্দের সম্মুখে অবস্থিত ‘জামিয়া বাবুস সালাম’ মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা করেছে। আজ ১১ ফেব্রুয়ারী ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব আবদুর রশিদ মোল্লাহ স্বাক্ষরিত এক নোটিশে উল্লেখ করা হয়, বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লী ও বিদেশী মেহমানগণের অংশগ্রহণ নিশ্চিত ও সুষ্ঠু করার স্বার্থে ‘জামিয়া বাবুস সালাম’ বিমানবন্দর গোলচক্কর, ঢাকা আগামী ১৪-২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রাখার ব্যবস্থা করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

ছাত্রদের উশৃঙ্খল আচরণের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাবুস সালাম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আনীস

চিঠিটির অনুলিপি নিম্নোক্ত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানে প্রদান করা হয়েছে

১. সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ, স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।
২. সচিব, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।
৩. মহা-পুলিশ পরিদর্শক, বাংলাদেশ পুলিশ, পুলিশ হেড কোয়ার্টার, ঢাকা।
৪. পুলিশ কমিশনার, ডিএমপি, ঢাকা।
৫. পুলিশ কমিশনার, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ, গাজীপুর।
৬. সচিবের একান্ত সচিব, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা (সচিব মহোদয়ের সদয় অবগতির জন্য)।
৭. অফিস কপি/মাষ্টার ফাইল।

উল্লেখ্য যে, গত বছরের ইজতেমায় তাবলীগের বিশ্ব আমীর শায়খুল ইসলাম আল্লামা সাদ কান্ধলভী বাংলাদেশে আসলে বিমানবন্দর গোলচক্করে অবস্থিত এই ‘জামিয়া বাবুস সালাম’ মাদরাসা সর্বপ্রথম রাস্তায় বেরিক্যাডের মাধ্যমে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করে। এরপর তাবলীগের যেকোন ইস্যুতে বারবার এই মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আনীসুর রহমান কোমলমতি ছাত্রদেরকে রাস্তায় লেলিয়ে দিয়ে বিমানবন্দরে অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরী করেন। পাশাপাশি তাদের এই উশৃঙ্খল, উগ্রপন্থী ও জঙ্গিবাদী আচরণে বিমানের ফ্লাইট বাতিলের মত ঘটনাও ঘটেছে। বিমানবন্দরের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক জায়গায় এই রকম একটি উগ্রপন্থী প্রতিষ্ঠান নিয়ে সচেতন মহলে আপত্তি ছিলো বরাবরের মতই। অনেকেই বলেছেন, দেশের জননিরাপত্তা ও ভাবমূর্তি রক্ষার স্বার্থে প্রতিষ্ঠানটি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া সময়ের দাবী। বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে সরকারের আন্তরিক ও প্রশংসনীয় উদ্যোগের পর এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ধর্মপ্রাণ শান্তিকামী মানুষ।

তাবলীগবিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্বে বাবুস সালামের মুহতামিম মাওলানা আনীসুর রহমান

এছাড়া বিভিন্ন তাবলীগের কাজে আসা বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা ও ঢাকা শহরের বিভিন্ন থানার মেহমানরা মাওলানা আনীসুরের নেতৃত্বে হেনস্তা ও আক্রমণের শিকার হন। আজকের এই পরিপত্র প্রকাশের পর সারাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা স্বস্তিবোধ করছেন। তারা মনে করছেন, বিদেশী গুরুত্বপূর্ণ মেহমানরা এমন সিদ্ধান্তের ফলে আসন্ন বিশ্ব ইজতেমায় নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারবেন।

Facebook Comment





© All rights reserved © 2020 TabligNewsBD.Com
Design & Developed BY PopularServer.Com